advertisement
আপনি পড়ছেন

অফিস নেই অথচ বাংলাদেশে ডিজিটালি ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করছে এমন সব প্রতিষ্ঠানকে আগামী অর্থবছরে করের আওয়াত নিয়ে আসা হবে। ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে গুগল, ফেসবুক, ইউটিউবের মতো সকল ডিজিটাল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানকে কর দিতে হবে, এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। 

facebook google 3ফেসবুক-গুগল

অর্থমন্ত্রী বলেন, চলতি অর্থবছর পর্যন্ত দেশে কার্যালয় নেই কিন্তু কার্যক্রম আছে এমন অনাবাসিক প্রতিষ্ঠানকে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হচ্ছে না। তবে আগামী অর্থবছর থেকে পরিবর্তন আসতে পারে।

দেশে বর্তমানে গুগল ও ফেসবুকের মতো গ্লোবাল টেক জায়ান্টগুলোর কার্যালয় নেই কিন্তু কার্যক্রম আছে। ডিজিটাল সেবাদানকারী এ সকল প্রতিষ্ঠানকে আগামী অর্থবছর থেকে করের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের এবারের এই বাজেট আওয়ামী লীগ সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদের চতুর্থ বাজেট। এছাড়া এটি দেশের ৫১তম এবং আওয়ামীলীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের ২৩তম বাজেট। এবারের বাজেটের শিরোনাম ছিল ‘কোভিডের অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রত্যাবর্তন’।

করোনাভাইরাস এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ মিলিয়ে দেশের অর্থনীতির ওপর মারাত্মক প্রভাব পড়ছে। জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে অস্বাভাবিক গতিতে। ডলারের বিপরীতে বারবার টাকার দরপতন হচ্ছে। সঙ্গত কারণেই এবারের বাজেটে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষি খাত, মানবসম্পদসহ বেশকিছু খাতকে।