advertisement
আপনি পড়ছেন

ডাক ও টেলিযোগযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানিয়েছেন, অবৈধ পথে আসা মোবাইল ফোনসেট দেশে কাজ করবে না। দেশে যাতে কেউ অবৈধভাবে আসা এবং চোরাই মোবাইল ফোনসেট ব্যবহার করতে না পারে তার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে।

tarana halim minister

মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবার টেলিযোগাযোগ খাতের রিপোর্টারদের সংগঠন ‘টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের (টিআরএনবি) নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি ও সাধারণ সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এ তথ্য জানান তিনি।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি নকল ও আইএমইআই নম্বরবিহীন মোবাইল ফোনসেট ব্যবহার রোধে ২০১২ সালের মার্চে প্রথম উদ্যোগ নিয়েছিল। ওই সময় ছয় মাসের মধ্যে নকল সেটের আইএমইআই নম্বর চিহ্নিত করার জন্য মোবাইল ফোন অপারেটরদের নির্দেশনা দেওয়া হলেও তার বাস্তবায়ন হয়নি।

ফলে এবার বেশ শক্তভাবেই অবৈধ ফোন বন্ধ করার অভিযানে নামা হচ্ছে বলে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বৈধ পথে আসা মোবাইল হ্যান্ডসেটের আইএমইআই ডাটাবেইস তৈরি হচ্ছে। এর বাইরে যে হ্যান্ডসেটগুলো তা অকার্যকর হয়ে যাবে। এ বিষয়ে আমরা বিভিন্ন প্রস্তাব পর্যালোচনা করে দেখছি।’

দেশে ফোরজি কবে নাগাদ চালু হচ্ছে? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আশা করছি, আগামী ডিসেম্বর থেকে দেশে চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) মোবাইল ফোন সেবা এবং প্রায় একই সময়ে নম্বর না পাল্টে অপারেটর বদলের সুযোগ (এমএনপি সেবা) শুরু হতে পারে। ‘সিএসআর ফান্ড, কনটেন্ট ফিল্টারিং, লোকেশন পিন পয়েন্ট ইত্যাদি বিষয়ে অপারেটরদের ব্যাখ্যা দেওয়া হচ্ছে। সামনে ফোরজি লাইসেন্স প্রদান ও তরঙ্গ নিলাম হবে। অপারেটররা সেখানে অংশ নিতে পারবেন।’

বিটিসিএলের ল্যান্ডফোনের উন্নীতকরণ প্রক্রিয়া সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করে তিনি বলেন, ‘বিটিসিএলের ল্যান্ডফোনে ইনস্ট্রাকশন দেওয়া থাকবে। দু-তিনবার কল আসার পর রিসিভ না হলে ওই কল গ্রাহকের মোবাইলে চলে (ডাইভার্ট হয়ে) যাবে। এ বিষয়ে কাজ চলছে।’