advertisement
আপনি পড়ছেন

প্রথম সাবমেরিন ক্যাবলের মেরামত কাজ চলায় ধীরগতি থাকবে ইন্টারনেট সেবায়। চলতি মাসের ২২ থেকে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত তিন দিন বাংলাদেশের গ্রাহকরা ধীরগতির ইন্টারনেট সেবা পাবেন।

internet

বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) এ খবর জানিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে দেশের ইন্টারনেট সেবাদাতা সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে চিঠি দিয়ে ওই তিন দিনের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বলা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ক্যাবল মেরামত ও সংস্কার কাজের জন্য ওই তিন দিন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা সাময়িক সমস্যার সম্মুখীন হবেন। দেশের প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল (সি-মি-উই-৪) ’র ল্যান্ডিং স্টেশন কক্সবাজারে আগামী ২২, ২৩ ও ২৪ অক্টোবর এ মেরামত কাজ চলবে।

অন্যদিকে মেরামত চলাকালীন সময়ে দেশে ভয়াবহ ইন্টারনেট বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। তারা জানিয়েছে, ওই সময়ে ব্যান্ডউইথের ঘাটতি থাকবে ২০০ জিবিপিএসেরও বেশি। ফলে ওই সময় দেশের ইন্টারনেটে ধীর গতি হতে পারে বলে ধারণা করছেন খাত সংশ্লিষ্টরা।

বর্তমানে দেশে ব্যবহৃত মোট ব্যান্ডউইথ ব্যবহারের পরিমাণ ৪৪০ জিবিপিএস। এর মধ্যে ৩০০ জিবিপিএসই আসছে প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল থেকে। ফলে ২০০ জিবিপিএস ঘাটিতি হলে ইন্টারনেট গ্রাহকরা বেশ বড় ধরনের সমস্যার মধ্যে পরবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে এ সময় দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল (সি-মি-ইউ-৫) দিয়ে বিকল্প ব্যবস্থায় দেশে ব্যান্ডউইথ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখা হবে বলে জানিয়েছে বিএসসিসিএল। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, ওই তিনদিন ব্যান্ডউইথ ঘাটতির পরিমাণ মোট চাহিদার চেয়ে ৫০ জিবিপিএসেরও কম হবে।

এ বিষয়ে বিএসসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মসিউর রহমান বলেন, ‘প্রথমবারের মতো সাউথ ইস্ট এশিয়া-মিডল ইস্ট-ওয়েস্টার্ন ইউরোপ-৪ (এসইএ-এমই-ডব্লিউই-৪) নামের এ সাবমেরিন ক্যাবল সম্পূর্ণ বন্ধ করে মেরামত করা হচ্ছে। এতে করে দেশের ইন্টারনেটের গতির উপর সাময়িক প্রভাব পড়বে। দেশের প্রথম এই সাবমেরিন ক্যাবল বন্ধ থাকার সময় ইন্টারনেটের গতি ধীর হবে।’