advertisement
আপনি পড়ছেন

মোবাইল ফোন অপারেটিংয়ে তীব্র প্রতিযোগিতায় টিকতে পারছে না সরকারি প্রতিষ্ঠান টেলিটক। ফলে এবার গ্রাহকদের জন্য সবচেয়ে কম দামের দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবার মধ্য দিয়ে মূলধারা ফিরতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।

teletalk new logo

জানা গেছে, সম্প্রতি বিনিয়োগ ও নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের জটিলতা দূর করেছে টেলিটক। তাই শিগগিরই কম দামে দ্রুতগতির ফোর-জি চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানান, ব্যবহারকারীদের জন্য টেলিটককে স্বস্তিকর করে তোলার চেষ্টা চলছে। এর সম্প্রসারণে প্রধান বাধা ছিল বিনিয়োগ আর নেটওয়ার্ক। তবে শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, টেলিটকের নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের পর বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) থেকে ব্যান্ডউইথ নিতে পারবে। ফলে সবচেয়ে কমদামে (চিপেস্ট) প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহককে ইন্টারনেট দিতে পারবে। এটি সফল হলে দুনিয়ার কোনো অপারেটরই টেলিটকের সঙ্গে কুলাতে পারবে না।

mostafa jabbar

মন্ত্রী মনে করেন, আগামী দিনে টেলিযোগাযোগ খাত হবে ইন্টারনেটনির্ভর। মোবাইল ব্যবহারকারীরা ভয়েস কলের বদলে ইন্টারনেটনির্ভর কলে আগ্রহী হবে। তাই ডাটা দিয়েই টেলিটককে সামনে তুলে আনা সম্ভব হবে।

জানা গেছে, চলতি বছরের ২০ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে ফোর-জি সেবা চালু করে গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক ও এয়ারটেল। কিন্তু টেলিটক এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে। ফলে বিপুল সংখ্যক গ্রাহক হারিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যদিও ২০১২ সালে সবার আগে থ্রিজি চালু করেছিল টেলিটক।