advertisement
আপনি পড়ছেন

গ্রামীণফোন বলছে, বঙ্গোপসাগরের গভীরে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ফলে উপকূল থেকে ৩৮ কিলোমিটার গভীরেও নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে। ফলে উপকূলবাসীর জীবনে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আসবে বলে মনে করা হচ্ছে।

grameenphone logo 1

গ্রামীণফোনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, দেশের উপকূলীয় চারটি স্থানে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন টাওয়ার স্থাপন করেছে গ্রামীণফোন। এগুলো হলো- কক্সবাজার, কুয়াকাটা, ভোলার চর কুকরিমুকরি ও পটুয়াখালীর চর মন্তাজ। এ চারটি স্থানকে কেন্দ্র করে স্থাপিত গ্রামীণফোনের এ নেটওয়ার্ক বিস্তৃতির সুবিধা পাওয়া যাবে গভীর সমুদ্রের ৩৮ কিলোমিটার পর্যন্ত। বর্তমানে সমুদ্রের ২০ কিলোমিটার দূরবর্তী অঞ্চলে পাঁচ শতাধিক নৌযান গ্রামীণফোনের মোবাইল সেবা নিচ্ছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে গ্রামীণফোনের ডেপুটি সিইও ও সিএমও ইয়াসির আজমান গণমাধ্যমকে বলেন, জাতীয় রাজস্ব আয়ে উপকূলীয় অঞ্চল ও বঙ্গোপসাগর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। আমাদের খাদ্যের চাহিদা পূরণেও উপকূলবাসীর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। তাই তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের বিশ্বাস, গ্রামীণফোনের নেটওয়ার্কের সম্প্রসারণ এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।