advertisement
আপনি দেখছেন

মোবাইল ইন্টারনেটের ডাটার মেয়াদ বাড়াতে এবং মেয়াদ শেষ হওয়ার পর অব্যবহৃত ডাটা পরবর্তী সময়ে কেনা ডাটা প্যাকেজের সঙ্গে ফিরিয়ে দিতে মোবাইল অপারেটরগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। একই সময়ে কলড্রপের টাকা ফেরত দেয়ারও নির্দেশ দেন তিনি।

ict ministerডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার

সোমবার (২ আগস্ট) দেশের মোবাইল অপারেটরদের কার্যক্রম তদারকি করতে যন্ত্রপাতি কেনা সংক্রান্ত এক চুক্তি শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করে তিনি বলেন, আগে মোবাইল অপারেটরগুলো বেঁচে যাওয়া এই ডাটা ফেরত দিত। এই ডাটা ফেরত পেয়েছি আমি নিজেও। কিন্তু এখন তারা ওই ডাটা কেন দেয় না, তাদের কাছে এ প্রশ্নটা আমারও।

smartphoneস্মার্ট ফোনের প্রধান অনুষঙ্গ ডাটা

গ্রাহকদের স্বার্থ বিবেচনা করে ডাটা প্যাকেজের মেয়াদ অতি সংক্ষিপ্তকরণ না করার বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বিটিআরসি ও মোবাইল অপারেটরদের প্রতি নির্দেশনা দেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, মোবাইল অপারেটরদের আমি বলেছি, উল্টোপাল্টা মেয়াদ দিয়ে যে মোবাইল ইন্টারনেট প্যাকেজ করা হয়, সেটা যেন এখন থেকে আর না করে।

পাশাপাশি আরো বলেছি, কল ড্রপের টাকাও যেন তারা ফেরত দেয়। কারণ, স্বাভাবিকভাবেই এটা ভোক্তার অধিকার। তাদের সেই অধিকার দিতে হবে। একচেটিয়া প্রফিট করার জন্য কাউকে লাইসেন্স দেওয়া হয়নি।

এদিকে, মোবাইল অপারেটরদের কার্যক্রম তদারকি করতে কানাডাভিত্তিক আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান টিকেসি টেলিকম এবং বিটিআরসি'র মধ্যে টেলিকম মনিটরিং সিস্টেম ক্রয়ের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। সোমবার (২ আগস্ট) বিটিআরসি কার্যালয়ে এ চুক্তি সই হয়।

বিটিআরসি'র পক্ষে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স বিভাগের পরিচালক মো: গোলাম রাজ্জাক ও কানাডাভিত্তিক টিকেসি টেলিকমের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সামির তালহামি এতে স্বাক্ষর করেন। চুক্তি অনুযায়ী চুক্তি স্বাক্ষরের ১৮০ দিনের মধ্যে টেলিকম মনিটরিং সিস্টেম স্থাপনের কাজ সম্পন্ন করতে হবে প্রতিষ্ঠানটিকে।

বিটিআরসি'র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেন বক্তব্য দেন। এছাড়া স্বাগত বক্তব্য দেন বিটিআরসি'র ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড অপারেশন্স বিভাগের কমিশনার প্রকৌশলী মো. মহিউদ্দিন আহমেদ।