advertisement
আপনি পড়ছেন

বন্যাদুর্গত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত ইন্টারনেট ও টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে পুনঃস্থাপন করে জীবনধারা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি। ভিস্যাট হাব স্থাপনের পাশাপাশি ইত্যেমধ্যে শতকরা ৯০ ভাগ মোবাইল টাওয়ার সচল করা হয়েছে, এমনটাই জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

mostafa jobber ictডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, ফাইল ছবি

সোমবার নেত্রকোণায় বন্যার্তদের মাঝে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মোস্তাফা জব্বার এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, চলতি বন্যায় অভাবনীয় চ্যালেঞ্জ ছিল। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অত্যন্ত সফলতার সাথে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা সম্ভব হয়েছে।

সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা জেলার মোবাইল নেটওয়ার্কের মোট ২ হাজার ৫২৮টি সাইটের মধ্যে সচল হওয়া সাইটের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। এরইমধ্যে ১ হাজার ৯০৩টি সাইট সচল হয়েছে। যে ৯৭টি সাইট এখনও বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন হয়ে নেটওয়ার্কের বাইরে রয়ে গেছে সেগুলোর মধ্যে সিলেটে রয়েছে ২৯টি, নেত্রকোনায় ৮টি এবং সুনামগঞ্জে ৫৯টি। সোমবার মোবাইল নেটওয়ার্কের সবশেষ দেওয়া তথ্যে এসব জানিয়েছে বিটিআরসি।

এছাড়া বন্যাদুর্গত জেলায় যে সকল এনটিটিএন অপারেটর রয়েছে তাদের অধিকাংশ পপ বর্তমানে সচল অবস্থায় রয়েছে।