আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 52 মিনিট আগে

ম্যাচের শুরুটাই হয়েছিল রেকর্ড দিয়ে। মাত্র ১৬ বছর ১৫৭ দিনে আইপিএল অভিষেক হয়েছে প্রায়াস রায় বর্মণের। তবে এরপরে যে রেকর্ডগুলো হলো সেগুলোর কাছে এই রেকর্ড তো ডালভাত! সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর মধ্যকার ম্যাচের প্রথম ইনিংসটা ছিল রেকর্ডে ভরা।

ab de villiers vs sunrisers hyderabad

প্রথমে ব্যাটিং করে দুই ওপেনারের সেঞ্চুরিতে ২৩১ রান তোলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। জনি বেয়ারস্টো মাত্র ৫৬ বল খেলে ১২টি চার ৭টি ছক্কার সাহায্যে করেছেন ১১৪ রান। হায়দরাবাদের অপর ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ৫৫ বলে ঠিক ১০০ রানে অপরাজিত ছিলেন। দুজনের ওপেনিং জুটি ছিল ১৮৫ রানের। আইপিএল ইতিহাসে যেটা প্রথম উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি। আগের রেকর্ডটি ছিল ক্রিস লিন ও গৌতম গম্ভিরের (১৮৪ রানের)।

ম্যাচটা যে একপেশে হতে যাচ্ছে প্রথম ইনিংস শেষেই সেটা আন্দাজ করা যাচ্ছিল। হয়েছেও তাই, শেষ পর্যন্ত ১১৮ রানে হেরেছে বিরাট কোহলির বেঙ্গালুরু। ২৩১ রানের পরও বেঙ্গালুরুর হয়ে যারা স্বপ্ন দেখছিলেন তাদের প্রত্যাশা পুরণ করতে পারেননি বিরাট কোহলি, এবি ডি ভিলিয়ার্স। কোহলি ১০ বলে ৩ করে ফিরেছেন। ডি ভিলিয়ার্স ফিরেছেন ২ বলে ১ রান করে। সাত নম্বরে নেমে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ৩২ বলে ৩৭ করেছেন, সেটাই বেঙ্গালুরুর পক্ষে সর্বোচ্চ।

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভারের এক বল আগে মাত্র ১১৩ রানেই গুটিয়ে গেছে কোহলির দল। রান পাহাড়ের জবাব দিতে নেমে কোহলিদের এভাবে অল্পতেই গুটিয়ে যাওয়াতে বড় অবদান রেখেছেন মোহাম্মদ নবি। হায়দরাবাদের আফগানি অলরাউন্ডার ডানহাতি স্পিনে চার ওভার বোলিং করে মাত্র ১১ রান খরচায় ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন। সন্দীপ শর্মা ১৯ রানে নিয়েছেন তিন উইকেট।

হায়দরাবাদের এমন রাজসিক জয়ে একদিক চিন্তা করে অখুশি হতেই পারেন সাকিবভক্তরা! চোট বা কোনো সমস্যা না থাকলে হায়দরাবাদের একাদশে রশিদ খান, ডেভিড ওয়ার্নার ও কেন উইলিয়ামন অনেকটা নিশ্চিত। অর্থাৎ জনি বেয়ারস্টো ও মোহাম্মদ নবি ছিলেন সেরা একাদশে জায়গা পাওয়ার প্রতিযোগিতায় সাকিবের দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। আজ জ্বলে উঠলেন দুজনেই। সে হিসেবে বলা যায়, সেরা একাদশে জায়গা ফিরে পাওয়াটা বাংলাদেশ অধিনায়কের জন্য আরও কঠিন হয়ে দাঁড়াল!