advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

ক্রিকেট মাঠে কতোভাবেই না মুগ্ধ করেছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। এখনও করছেন, কখনো বল হাতে কখনো ক্ষুরধার অধিনায়কত্বে, আবার কখনো সরল আচরণে। ক্রিকেট মাঠে মুগ্ধতা ছড়ানো মাশরাফি এখন মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন রাজনীতির ময়দানেও।

mashrafe ministry

অনেক সমালোচনা উপেক্ষা করে গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন মাশরাফি। নির্বাচনের সময় মাশরাফির প্রচারণার ধরণ মুগ্ধ করেছে অনেককে। কোনো প্রকার সহিংসতা সৃষ্টি বা প্রতিদ্বন্দ্বীকে হেনস্তা না করার কড়া নির্দেশনা ছিল মাশরাফির। নির্বাচনের সময় তার এলাকায় সেভাবে গণ্ডগোলের খবরও শোনা যায়নি।

মাশরাফি একের পর এক বিরল ঘটনার জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পরও। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ক'দিন যাবত মন্ত্রণালয় থেকে মন্ত্রাণালয়ে ছুটে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ককে।

বর্তমানে আবাহনী লিমিটেডের হয়ে প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ খেলছেন মাশরাফি। লিগের মধ্যেই গত ৩ এপ্রিল শিক্ষামন্ত্রী ডা, দীপু মনি ও স্থানীয় সরকার, সমবায় ও পল্লী উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী স্বপ্ন ভট্টাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। সে সময় নড়াইলের ১৬০টি মাটির রাস্তা উন্নয়নের তালিকা দিয়েছিলেন মাশরাফি।

তার আবেদনের প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে ৭০টি রাস্তা পাকা করার অনুমোদনও হয়ে গেছে। এছাড়া এলজিইডি অফিসের অধীনে প্রায় ২০ কোটি টাকার বিশেষ বরাদ্দও প্রদান করা হচ্ছে।

ওই ধারাবাহিকতায় আজও মন্ত্রণালয়ে হাজির হয়েছিলেন মাশরাফি। আজ মঙ্গলবার দুপুরে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীমের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান তিনি। নিজের নির্বাচনী এলাকা নড়াইলের মধুমতি ও চিত্রা নদীর ড্রেজিং এবং পাড় সংরক্ষণের আবেদন নিয়ে গিয়েছিলেন মাশরাফি। এ সময় তাকে দেখে প্রচণ্ড ভিড় লেগে যায় উপস্থিত লোকজনের মাঝে।

চিত্রা নদীর নড়াইল শহরের অংশে ঢাল সংরক্ষণের আবেদনও ছিল মাশরাফির। নদী ভাঙন রোধে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য আবেদন করেন তিনি। জানা গেছে, মাশরাফিকে সব ধরনের সাহায্য করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে। উল্লেখ্য, নড়াইল-২ আসন থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন মাশরাফি।

sheikh mujib 2020