advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

গতকাল রাজস্থান রয়্যালস বনাম চেন্নাই সুপার কিংসের মধ্যকার ম্যাচটা দেখেছেন? আইপিএলের ২৫ নম্বর ম্যাচটাতে রোমাঞ্চ আর বিতর্কের অভাব ছিল না। সবচেয়ে বেশি বিতর্ক হলো চেন্নাইয়ের ইনিংসের শেষ ওভারে।

ms dhoni with umpires at jaipur

জয়ের জন্য শেষ ওভারে ১৮ রান দরকার ছিল চেন্নাই সুপার কিংসের। বেন স্টোকসের করা সেই ওভারের তৃতীয় বলে ৫৮ রানে আউট হয়ে যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। শেষ তিন বলে চেন্নাইয়ের প্রয়োজন ছিল ৮ রান।

স্টোকস ওভারের চতুর্থ ডেলিভারিটি ফুলটস দিতে চেয়েছিলেন হয়তো। কিন্তু উচ্চতা এতোটাই বেশি যে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছিল ‘নো বল’ হয়েছে। নন স্ট্রাইক প্রান্তের আম্পায়ার উলহাস গান্ধে ‘নো’ ডেকেছিলেনও। কিন্তু স্কয়ার লেগ অঞ্চলে দাঁড়িয়ে থাকা তার সতীর্থ আম্পায়ার ব্রুস অক্সেনফোর্ড সিদ্ধান্তটি বাতিল করে দেন। তারপর বহু নাটকই হয়েছে, কিন্তু ‘নো’ বাতিল করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেননি ব্রুস।

ঠিক এই ঘটনাটি কিন্তু বাংলাদেশের বিপক্ষেও ঘটেছিল। গত নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অলিখিত সেমিফাইনালে পরিনত হওয়া সেই ম্যাচটার কথা নিশ্চয়ই মনে আছে অনেকেরই! ম্যাচের টানটান উত্তেজনার সময় মোস্তাফিজুর রহমানকে টানা দুটি হাই বাউন্সার করেছিলেন শ্রীলঙ্কান পেসার ইসুরু উদানা। দ্বিতীয় বলটিকে ‘নো বল’ ডেকেছিল লেগ আম্পায়ার। কিন্তু স্ট্রাইক আম্পায়ার ‘নো’ সিদ্ধান্তটি বাতিল করে দেন।

তারপর প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছিল বাংলাদেশ দল। টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও রুবেল হোসেনকে মাঠ ছেড়ে বেড়িয়ে আসার ইশারাও দেন। সেদিন ন্যায্য ‘নো বল’টি পায়নি বাংলাদেশ। মাহমুদুল্লাহর অসাধারণ এক ইনিংসের কল্যাণে শেষ পর্যন্ত ম্যাচটা জিতে ফাইনালে উঠে গিয়েছিল বাংলাদেশ। কালও অনেক বিতর্কের পর চেন্নাই ম্যাচটি জিতেছে। তবে জিতেও হয়তো পুরোপুরি সন্তুষ্ট নয় চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। মোটা অঙ্কের জরিমানায় যে পড়তে হয়েছে তাকে।

‘নো বলে’র সিদ্ধান্ত বাতিল করে দেওয়াতে কাল ড্রেসিংরুম থেকে মাঠে গিয়ে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দিয়েছিলেন ধোনি। যাতে আইপিএলের আচরণবিধির ২.২০ ধারায় দ্বিতীয় মাত্রার অপরাধে অভিযুক্ত হয়েছেন তিনি। এর ফলে ধোনিকে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে।

sheikh mujib 2020