advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 15 মিনিট আগে

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চলতি আসরে প্রতিটি দল অন্তত দুটি ম্যাচে জিতেছে। সেখানে একটিও জয় ছিল না রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর। অবশেষে রাহুর দশা কাটিয়ে উঠল বিরাট কোহলির দল; পেল স্বস্তির প্রথম জয়। সপ্তম ম্যাচে এসে জয়খরা কাটাল ব্যাঙ্গালুরুর ফ্র্যাঞ্চাইজিটি।

de villiers watches closely as he shapes to scoop

শনিবার কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে আট উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে চেনারূপে ফিরেছে কোহলির দল। তবে মূল লড়াইটা হয়েছে ক্রিস গেইল বনাম এবি ডি ভিলিয়ার্সের মধ্যে। যেখানে ৯৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেও পাঞ্জাবকে জেতাতে পারেননি গেইল। ডি ভিলিয়ার্সের ৫৯ রানের ঝড়ে ম্লান হয়ে গেছেন ক্যারিবীয় দৈত্য।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে গেইল তাণ্ডবে নির্ধারিত ২০ ওভারে চার উইকেটে ১৭৩ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি গড়ে পাঞ্জাব। কঠিন লক্ষ্যে হেসে খেলেই পৌঁছে গেছে ব্যাঙ্গালুরু। অধিনায়ক কোহলির ব্যাটিং দৃঢ়তা ও ডি ভিলিয়ার্সের হার না মানা ইনিংসের ওপর দাঁড়িয়ে চার বল হাতে রেখেই জয় তুলে নিয়েছে ব্যাঙ্গালুরু (১৭৪/২)।

পাঞ্জাবের বড় সংগ্রহের ভিতটা গড়ে দিয়েছেন গেইল। তবু একটা আফসোস নিয়ে ক্রিজ ছাড়তে হয়েছে ক্যারিবীয় ওপেনারকে। মাত্র এক রানের জন্য সেঞ্চুরিটা পেলেন না তিনি! ৬৪ বলের অজেয় ইনিংসে ১০টি চার ও পাঁচটি ছক্কা হাঁকিয়েছেন গেইল। বাকি পাঁচ ব্যাটসম্যানের চারজনই ছুঁয়েছেন দুই অংক। লোকেল রাহুল ও মন্দিপ সিং দুজনই করেছেন সমান ১৮ রান। ১৫ রান করে এসেছে মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও সরফরাজ খানের ব্যাট থেকে।

১৭৪ রানের কঠিন লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ঝড় শুরু করেন ব্যাঙ্গালুরুর দুই ওপেনার পৃথ্বি প্যাটেল ও বিরাট কোহলি। চতুর্থ ওভারের পঞ্চম বলে তাদের বিচ্ছিন্ন করেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ততক্ষণে স্কোর বোর্ডে জমা পড়েছে ৪৩ রান। নয় বলে ১৯ রানে আউট হয়ে যান প্যাটেল। পরে ব্যাঙ্গালুরুর জয়ের পথটা মসৃণ করে দেন কোহলি ও ডি ভিলিয়ার্স।

১২৮ রানে দলের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন কোহলি। আউট হওয়ার আগে ৫৩ বলে আটটি চারের সুবাদে ৬৭ রান করেছেন ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক। সঙ্গী হারালেও দলকে জিতিয়েই উইকেট ছেড়েছেন ডি ভিলিয়ার্স। পরিস্থিতির দাবি মিটিয়ে ৩৮ বলে ৫৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেছেন 'মিস্টার থ্রি সিক্সটি'।

বিধ্বংসী ইনিংসে পাঁচটি চার ও দুটি ছক্কা হাঁকিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকান কিংবদন্তি। পুরস্কার হিসেবে ম্যাচ সেরা হয়েছেন ডি ভিলিয়ার্স। শেষ জুটিতে তার সঙ্গী মার্কোস স্টয়নিস ১৬ বলে চারটি চারে ২৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলের জয়ে রেখেছেন ভূমিকা। কোহলির মতো তিনিও পেলেন পার্শ্বনায়কের চরিত্র। অথচ দুর্দান্ত একটা ইনিংস খেলেও ম্লান হয়ে গেলেন গেইল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব: ২০ ওভার, ১৭৩/৪
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু: ১৯.২ ওভার, ১৭৪/২
ফল: রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু আট উইকেটে জয়ী
ম্যাচ সেরা: এবি ডি ভিলিয়ার্স

রোববারের খেলা:
কলকাতা নাইট রাইডার্স-চেন্নাই সুপার কিংস, বিকেল ৪.৩০টা;
সানরাইজার্স হায়দরাবাদ-দিল্লি ক্যাপিটালস, রাত ৮.৩০টা;

ব্যাঙ্গালুরু-পাঞ্জাবের পরের ম্যাচ:
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স-রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু, ১৫ এপ্রিল, রাত ৮.৩০টা;
কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব-রাজস্থান রয়্যালস, ১৬ এপ্রিল, রাত ৮.৩০টা;

sheikh mujib 2020