advertisement
আপনি পড়ছেন

স্কটল্যান্ডকে ১১৪ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছে বাংলাদেশ। রোববার কক্সবাজারের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে শান্তর সেঞ্চুরিতে ভর করে বড় এ জয়টি পান মিরাজরা। এই ম্যাচে ১০৮ বলে ৪৯ রানের একটি ইনিংস খেলেন ওপেনার সাইফ হাসান। তার ইনিংসটিকে 'ধীর' বলে মন্তব্য করে অনেকে সমালোচনা করছেন। কিন্তু ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মিরাজ জানিয়েছন, ধীর ব্যাটিংয়েরই নির্দেশ ছিলো সাইফের প্রতি।

bangladesh u 19 after qualifying for last eight

ম্যাচ শেষে মেহেদি হাসান মিরাজ সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, 'আসলে উইকেট অনেক স্লো ছিলো। এ উইকেটে বেশি শট খেললে দ্রুত উইকেট হারিয়ে ফেলার মতো সমস্যা পড়তে হতে পারে। তাই ১০-১৫ ওভারে যতো কম উইকেট হারানো যায়; এই পরিকল্পনা ছিলো আমাদের।'

মিরাজ বলেন, '১৫ ওভারে ৪৫ রান এলেও সমস্যা ছিলো না। এমন নির্দেশনার কারণেই সাইফ ধীরে খেলেছে। সাইফকে বলা হয়েছিলো, সে যাতে এক প্রান্তের উইকেট ধরে রাখে। সে তার কাজ ঠিকভাবেই করেছে। অন্য দিকে শান্ত স্ট্রাইক রোটেট করে ওর কাজটা করে দিয়েছে। আজকের ম্যাচে এই কাজটা ঠিকভাবে করা খুব দরকার ছিলো আমাদের।'

১০৮ বলে ৪৯ রান করার পথে মাত্র দুটি চার মারেন সাইফ। একজন ওপেনারে এমন দৃষ্টিকটু ব্যাটিং দেখে অনেকেই বিরক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু অধিনায়কের কথার পর সাইফ এখন বাহবাই পাবেন। কারণ তিনি নিজের প্রতি সমালোচনা আসতে পারে, জেনেও দলের নির্দেশনাই পালন করেছেন।

উইকেট যে ব্যাটিংয়ের জন্য সহজ ছিলো না; এ কথা বলেছেন নাজমুল হোসেন শান্তও। অথচ তার ব্যাট থেকে সেঞ্চুরি এসেছে এ দিন। শান্ত বলেন, 'রান তোলা খুব কঠিন ছিলো। শুরুর দিকে আমি তাই খুব একটা আক্রমণ করিনি। শেষ দিকে বাজে বলের জন্য অপেক্ষা করেছি। বাজে বল পেয়েছি বলেই কিছু বাউন্ডারিও যোগ হয়েছে।'

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

নিষিদ্ধ সঞ্জিত, বদলি মোসাব্বেক

নামিবিয়ার কাছে হেরে বাদ দক্ষিণ আফ্রিকা

টানা দ্বিতীয় জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ

বিশ্বরেকর্ড গড়ে ছোটদের 'শচিন' হয়ে গেলেন শান্ত!