advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

পাকিস্তানের বোলারদের দিশেহারা করে দিয়ে এক ম্যাচেই রেকর্ডের বন্যা বয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। এডিলেইড ওভালে দিবারাত্রির টেস্টে শুক্রবার দ্বিতীয় দিনে অজিদের ইনিংস ঘোষণার আগ পর্যন্ত এ বামহাতি ব্যাটসম্যান অপরাজিত ছিলেন ৩৩৫ রানে। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক টিম পেইন ৩ উইকেটে ৫৮৯ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেন।

david warner takes flight after reaching his triple centuryত্রিপল সেঞ্চুরির পর ডেভিড ওয়ার্নার- ছবি ইন্টারনেট

গোলাপি বলের এই টেস্টে ওয়ার্নার শুধু নিজেকে নয় তার সতীর্থদের ছাড়িয়ে যাওয়ার মিশনে নেমেছিলেন। ১৬৬ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করা ওয়ার্নার খেলেছেন নিজের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। এর আগে তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটি ছিল ২৫৩ রানের।

শুধু তাই নয়, এই ব্যাটসম্যান ভেঙে দিয়েছেন স্যার ডন ব্রাডম্যানের ৮৭ বছরের রেকর্ড। এডিলেইডে টেস্টে এতদিন এক ইনিংসে ২৯৯* রান নিয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় শীর্ষে ছিলেন ব্রাডম্যান। ১৯৩২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওই রান করেন তিনি। ওয়ার্নার ৩৩৫ রান করে ব্রাডম্যানের সেই রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন।

শুধু তাই নয়, ব্রাডম্যানের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর ৩৩৪ রানকে ছাড়িয়ে গেছেন এই ওপেনার। অস্ট্রেলিয়া দলের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় ওয়ার্নারের সামনে এখন রয়েছেন ম্যাথু হেইডেন।

২০০৩ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৮০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন হেইডেন। অস্ট্রেলিয়া ৫৮৯ রানে ইনিংস ঘোষণা না করলে হয়তো সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় নামটা ওয়ার্নারেরই উঠে আসতো।

এদিকে ওয়ার্নারের কারণে হুমকির মুখে পড়েছিল ব্রায়ান লারার ব্যক্তিগত ৪০০* রানের ইনিংসটিও। ওয়ার্নারের ৩৩৫ রানের ইনিংস টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে ১০ম সর্বোচ্চ স্কোর।

৪১৮ বলে খেলা ওয়ার্নারের ইনিংসটি ছিল ৩৯টি চার ও ১টি ছক্কায় সাজানো। এছাড়া মারনাস লাবুশেন ১৬২ রানের ইনিংস খেলেন। এদিকে ব্যাট হাতে স্বাগতিকরা রানের পাহাড় গড়লেও উল্টো চিত্র দেখা গেছে পাকিস্তানের ইনিংসে। মিচেল স্টার্কের বোলিংতোপে প্রথম ইনিংসে ৯৬ রান তুলতেই ৬ উইকেট হারিয়ে ইনিংস ব্যবধানে হারের শংকায় সফরকারীরা।

বাবর আজম ৪৩ এবং ইয়াসির শাহ ১০ রানে অপরাজিত থেকে দিনের খেলা শেষ করেছেন। শান মাসুদ ১৯ এবং ইফতেখার আহমেদ ১০ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে মিচেল স্টার্ক ৪টি, কামিন্স ও হ্যাজলউড ১টি করে উইকেট নেন। এর আগে প্রথম টেস্টও ইনিংস ব্যবধানে হারে পাকিস্তান।

sheikh mujib 2020