advertisement
আপনি দেখছেন

হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট কাটিয়ে মাহমুদুল্লাহ যখন বিপিএলে ফিরলেন ততোদিনে দুই ম্যাচ খেলে ফেলেছে তার দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। আজ আবারও হ্যামস্ট্রিংয়ে টান পেয়েছেন চট্টগ্রামের অধিনায়ক। তবে তাতে ব্যাটিং বন্ধ করেননি। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে ব্যাট হাতে ঝড় তুলে রেকর্ড গড়লেন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার।

mahmudullah bpl 59

মাহমুদুল্লাহ ব্যাটিংয়ে নামেন চট্টগ্রামের ইনিংসের ১১ নম্বর ওভারে, হ্যামস্ট্রিংয়ে টান পেয়েছেন পরের ওভারেই। চোট পেতেই বুঝি তেতে উঠলেন! মাত্র ২৮ বলে ৫৯ রানের বিধ্বংসী একটা ইনিংস খেলেছেন ডানহাতি ক্রিকেটার। চোটের কারণে দৌড় এড়াতে চার-ছয়ের দিকে বেশি জোর দিয়েছেন। তার ইনিংসে চারের মার ছিল ৫টি, ছক্কা ৪টি। এই চার ছক্কার একটি ছিল ১১৩ মিটার! চলতি বিপিএলে এতোবড় ছক্কা আগে দেখা যায়নি।

মাহমুদুল্লাহর দিনে চট্টগ্রামের অন্যরাও ঝড়ো ব্যাটিং করেছেন। ওপেনার লিন্ডল সিমন্স ৩৬ বলে ৫ চার ৪ ছয়ে করেছেন ৫৭। ইমরুল কায়েস তিনে নেমে ২৪ বলে ৫ চার ১ ছয়ে করেছেন ৪০। অপর ওপেনার অভিষ্কা ফেরনান্দো ১৩ বলে করেন ২৬ রান। শেষ দিকে চ্যাডউইক ওয়ালটন ১৮ বলে ২৭ করলে নির্ধারিত২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২২১ রানের সংগ্রহ পায় চট্টগ্রাম।

চলতি বিপিএলে সর্বোচ্চ স্কোরের রেকর্ড এটি। বিপিএল ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ। গত বিপিএলে চিটাগাং ভাইকিংসের বিপক্ষে ২৩৯ রান তুলেছিল রংপুর রাইডার্স। সেটাই বিপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ স্কোর।

আজ চট্টগ্রামের ব্যাটসম্যানদের ঝড়ের মুখে সবচেয়ে বাজে দিন গেছে হাসান মাহমুদ ও মাশরাফি বিন মর্তুজার। ঢাকার অধিনায়কের তিন ওভার থেকে ৪২ রান তুলে নিয়েছে চট্টগ্রাম। আর হাসান মাহমুদ ৪ ওভারে দিয়েছেন ৫৫!