advertisement
আপনি দেখছেন

নিখুঁত সর্বকালের সেরা একাদশ তৈরি করা প্রায় অসম্ভব। তা দলটা যতই সমণ্বিত হোক না কেন, বিতর্ক থাকবেই। সেই বিতর্কে এবার যুক্ত হলেন পাকিস্তানের তারকা ক্রিকেটার ফখর জামান। আজ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সার্বজনীন সেরা একাদশ দিয়েছেন তিনি। যা ঝড় তুলল আলোচনা-সমালোচনার।

fakhar zaman celebration

ফখরের কুড়ি ওভারের স্বপ্নের দলে নেই বিরাট কোহলি এবং সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এই সময়ের সেরা আরেক ব্যাটসম্যান বাবর আজম। এই মুহূর্তে টি-টোয়েন্টিতে ভারতীয় অধিনায়কের ব্যাটিং গড় পঞ্চাশেরও বেশি। তবে কোহলিকে না রাখলেও তার সহকারী রোহিত শর্মাকে একাদশে রেখেছেন পাকিস্তানি অধিনায়ক। ফখরের দলে দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে আছেন পেসার জাস্প্রিত বুমরাহ।

টি-টোয়েন্টি রাজা বলা হয় ক্রিস গেইল ও শহিদ আফ্রিদিকে। অথচ বিস্ময়কর হচ্ছে দুজনের একজনকেও পছন্দ হয়নি ফখরের। তিনি ঠাঁই দেননি নিউজিল্যান্ডের সাবেক বিধ্বংসী ওপেনার ও অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম এবং অস্ট্রেলিয়ান সেনসেশন ডেভিড ওয়ার্নারকেও। তবে প্রত্যাশিতভাবেই ফখরের দলে আছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। অস্ট্রেলিয়ান দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে রাখা হয়েছে পেসার মিচেল স্টার্ককে।

একাদশে সর্বোচ্চ তিনজন রাখা হয়েছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের। ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার দুজন করে। একাদশে নিজেকেও রাখেননি ফখর। উইকেটরক্ষক হিসেবে তার পছন্দ জস বাটলারকে। ইংলিশ অন্য দুই ক্রিকেটার জেসন রয় ও বেন স্টোকসকে দলে ঠাঁই দিয়েছেন ফখর। এ ছাড়া পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে একজন করে দলে রেখেছেন তিনি।

ফখর জামানের সার্বজনীন টি-টোয়েন্টি একাদশ: এবি ডি ভিলিয়ার্স, রোহিত শর্মা, জেসন রয়, শোয়েব মালিক, জস বাটলার (উইকেটরক্ষক), গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, বেন স্টোকস, কাইরেন পোলার্ড, মিচেল স্টার্ক, জাস্প্রিত বুমরাহ, রশিদ খান।