advertisement
আপনি দেখছেন

২০০৭ বিশ্বকাপে জহির খানকে ডাউন দা উইকেটে এসে পোর্ট অব স্পেনের গ্যালারিতে আছড়ে ফেলায় তামিম ইকবালকে চিনেছিল ক্রিকেট ‍দুনিয়া। এরপরে লর্ডসের বিখ্যাত শতকে তাকে নতুন করে চেনে সবাই। বাংলাদেশ দলকে অনেক অর্জনের আনন্দে ভাসানো তামিম স্বীকৃত ক্রিকেটে স্পর্শ করলেন ২২ হাজার রানের মাইলফলক।

tamim iqbal file photo

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছে গেছেন তামিম। ২২ হাজার রানের গণ্ডি ছুঁতে এই ওপেনারের লেগেছে ৫৫১ ম্যাচ। স্বীকৃত ক্রিকেটে তার রয়েছে ৩৭টি শতক ও ১৩৩টি অর্ধশতক। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস অপরাজিত ৩৩৪ রান।

যেখানে ৯২টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ৪৩ গড়ে ৭১২৫ রান করেন তামিম। ২৫৩ লিস্ট 'এ' ম্যাচে তার রান ৯১১৮; গড় ৩৮। অন্যদিকে ২০৬ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৩১ গড়ে ৫৭৬৬ রান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই বাঁহাতি ওপেনারের রান ১৩,৩৬৫। রয়েছে ২৩টি শতক ও ৮১টি অর্ধশতক।

চট্টগ্রামে জন্ম নেওয়া বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যান ২০০৭ সালে অভিষেকের পর জাতীয় দলের হয়ে খেলে চলেছেন ১৩ বছর ধরে। বাংলাদেশের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান, শতক ও অর্ধশতকের মালিক তিনি। এই তো কদিন আগে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ওয়ানডেতে সাত হাজার রানের মাইলফলক ছুঁয়েছেন।