advertisement
আপনি দেখছেন

শঙ্কাটা আগে থেকেই ছিল। অবশেষে সেটাই বাস্তবে পরিণত হলো। করোনাভাইরাস আতঙ্কে স্থগিত করা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মুজিববর্ষ নিয়ে সব আয়োজন। যার অর্থ দাঁড়াচ্ছে এ মাসে এ আর রহমানের কনসার্ট হচ্ছে না। মাঠে গড়াচ্ছে না এশিয়া একাদশ-বিশ্ব একাদশের ম্যাচ দুটিও।

nazmul hasan papon 2020

আগামী ১৭ মার্চ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। এ উপলক্ষ্যে দেশজুড়ে আয়োজন করা হয়েছে বিভিন্ন ইভেন্ট ও অনুষ্ঠানের। এর অংশ হিসেবে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশ দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয় বিসিবি।

ম্যাচ দুটি ২১ ও ২২ মার্চ আয়োজনের কথা ছিল। ১৮ সেপ্টেম্বর কনসার্টের পরিকল্পনা ছিল বোর্ডের। কিন্তু বিসিবির পরিকল্পনায় জল ঢেলে দিল করোনাভাইরাস। এর সংক্রমণ ঠেকাতে দেশ ও দশের মঙ্গলের স্বার্থে মুবিজবর্ষের সব আয়োজন স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। পরবর্তীতে পরিস্থিতির উন্নতি হলে মুজিববর্ষের আয়োজন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বোর্ড।

আজ প্রচারমাধ্যমকে বোর্ডের প্রধান কর্তা নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, `আমাদের হাতে দুটি বিকল্প ছিল। ১৮ তারিখে এ আর রহমানের একটি কনসার্ট করার কথা। সেটি আমরা ছোটভাবে করতে পারতাম। কিন্তু আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বড়ভাবেই করতে চাই। সে জন্য ছোটভাবে না করে এটিকে পিছিয়ে দিয়েছি। ১৮ তারিখে হচ্ছে না। পরিস্থিতি উন্নতি হলে পরবর্তীতে কোনো সময় আয়োজন করব।’

নাজমুল আরো বলেছেন, ‘২১ ও ২২ মার্চ যে দুটি ম্যাচ ছিল, সেই ম্যাচ দুটি নিয়েও সমস্যা হচ্ছে। সব ক্রিকেটার এখানে এসে খেলতে পারবে, এমন কোনো কথা নেই। খেলে যে আবার ফিরে যেতে পারবে, সেই নিশ্চয়তা নেই। অনেকগুলো প্রতিবন্ধকতা এসেছে অনেক জায়গা থেকে। সেজন্য আমরা এটিও পিছিয়ে দিয়েছি। সামনে মাসখানেক পর পরিস্থিতি বুঝে আবার সিদ্ধান্ত নেব।’

এ মাসের শেষ দিকে তৃতীয় তথা শেষ দফায় পাকিস্তান সফরে যাওযার কথা বাংলাদেশ দলের। এনিয়ে এখনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি বিসিবি। তবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছে বোর্ড। শেষ অবধি পাকিস্তান সফর হবে কিনা সেটা আজ-কালের মধ্যেই জানা যাবে।

অবশ্য আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজন থেকে সরে দাঁড়ালেও ঘরোয়া ক্রিকেটের ম্যাচ চলবে বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভপাতি নাজমুল।