advertisement
আপনি দেখছেন

আশঙ্কা আগে থেকেই ছিল। অপেক্ষা ছিল আনুষ্ঠানিক ঘোষণার। সেটাও চলে এলো শুক্রবার। এদিন ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) জানিয়েছে, ভারতের বিপক্ষে সীমিত ওভারের সিরিজ এ বছর আয়োজন করা হচ্ছে না। আগামী বছরের জানুয়ারির পর মাঠে গড়াতে পারে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ দুটি।

logo england cricket board

সূচি অনুযায়ী আগামী সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও তিনটি ওয়ানডে ম্যাচের সিরিজ খেলার কথা ছিল ইংল্যান্ডের। পরে আগামী বছরের জানুয়ারিতে ফিরতি সফরে টেস্ট সিরিজ মাঠে গড়ানোর সূচি ছিল। পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ অবশ্য যথা সময়ে শুরু হতে পারে। তবে স্থগিত করা হলো সীমিত ওভারের সিরিজ দুটি।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে গত মার্চ থেকে স্থগিত হয়ে যায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। দীর্ঘ চার মাসের বিরতি দিয়ে ইংল্যান্ডে ফিরেছে ক্রিকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলেছে ইংলিশরা। কার্যত পাকিস্তানের সঙ্গে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ খেলছে তারা। দুই সিরিজের ফাঁকে আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ওয়ানডে লিগের একটি সিরিজ খেলেছে ইংল্যান্ড।

india cricket team celebration 2020

সবমিলিয়ে ঠাসাসূচির মধ্যে চলছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেট। তারই অংশ হিসেবে আগামী মাসে ভারতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভারত করোনার হটস্পট হয়ে ওঠায় তা আর হচ্ছে না। করোনার প্রকোপে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) পরবর্তী আসরও সরিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)।

ভারতের বিপক্ষে সিরিজ পেছানোর খবরটি নিশ্চিত করেছে ইসিবি। পরিস্থিতি বুঝে আগামী বছর বল মাঠে গড়ানোর কথা ভাবছে তারা। আগামী বছর ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইংলিশদের ধারণা, বিশ্বকাপের বছর সীমিত ওভারের ম্যাচ তাদের শক্তি ও দল নির্বাচনে সহায়ক হতে পারে।

sheikh mujib 2020