advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলির হস্তক্ষেপে অবশেষে কিছুটা রেহাই পেয়েছেন রোহিত শর্মা-আজিঙ্কা রাহানেরা। তাদের আপাতত আর ভোগান্তিতে পড়তে হবে না।

indian test team pleyar(বাম থেকে) রিশাব পান্ট, রবিচন্দ অশ্বিন, হনুমা বিহারী, চেতেস্বর পূজারা ও মায়াঙ্ক আগারওয়াল

ঘটনার সূত্রপাত ভারতীয় ক্রিকেট দলের ব্রিসবেনে এসে পৌঁছানোর পর থেকে। এখানে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মধ্যকার চলমান বোর্ডার-গাভাস্কার টেস্ট সিরিজের চতুর্থ ও শেষ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু যে হোটেলে সফরকারীদের রাখা হয়েছে, সেখানেই বাধে বিপত্তি।

অভিযোগ উঠেছে কুইন্সল্যান্ড রাজ্যের যে হোটেলে তাদের রাখা হয়েছে, সেখানে কোনো হোটেল স্টাফ নেই। আর যারা আছেন, তারাও তেমন কাছে আসছেন না। ফলে টয়লেটসহ সকল কিছুই ভারতীয় ক্রিকেটারদেরই পরিষ্কার করতে হচ্ছে।

মূল সমস্যার শুরু আগে থেকেই। করোনাভাইরাসের কারণে চতুর্থ টেস্টের ভেন্যু ব্রিসবেনসহ পুরো কুইন্সল্যান্ড রাজ্যে কঠোর লকডাউন চলছে। এমতাবস্থায় ম্যাচ খেলার শর্ত হিসেবে ভারতীয় দলকে বলা হয়েছিল, হোটেলে নিজেদের রুম থেকেও বের হতে পারবেন না তারা। জবাবে সফরকারীরা জানায়, এভাবে খেলা সম্ভব নয়, প্রয়োজনে ম্যাচ না খেলেই দেশে ফিরে আসবে।

aus india 2021

এর পরই শর্ত কিছুটা শিথিল করে কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ব্রিসবেনে পাঁচ তারকা হোটেল 'সোফিটেলে' উঠার পর বেশ অবাক হয়েছে রোহিত শর্মা-রাহানেরা। তাদের কাছে এটিকে 'জেলখানা' মনে হচ্ছিল। হোটেলের বাইরে যেতে না পারলেও লবির বাইরে যেতে পারছেন। সুইমিংপুল থাকা সত্ত্বেও ব্যবহার করতে পারছেন না। হোটেলের ক্যান্টিনও বন্ধ। এমনকি তারা ছাড়া আর কোনো গেস্ট নেই সেখানে। খাবার আসছে বাইরের একটি রেস্টুরেন্ট থেকে।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করেন খোদ বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলি। এর পরই কর্তৃপক্ষ হোটেল কর্মীদের রুম সার্ভিসসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সুবিধাদি দেয়ার ব্যাপারে নির্দেশ প্রদান করে। ফলে এখন সুইমিংপুলও ব্যবহার করতে পারছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

দুই দলের মধ্যকার সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্ট আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে।

sheikh mujib 2020