advertisement
আপনি দেখছেন

জোহানেসবার্গের ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে চার উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। দুর্দান্ত ফিফটি হাঁকিয়েছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। তবুও এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানকে সরিয়ে ওপেনিংয়ে ফখর জামান এবং শারজিল খানকে চাইছেন শোয়েব আখতার।

sharjeel and fakharশারজিল খান এবং ফখর জামান

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে আগে ব্যাট করে ১৮৮ রানের বড় পুঁজি পেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। জবাবে  ১৯.৫ ওভার ব্যাট করে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান। ওপেনিংয়ে নেমে ৫০ বলে ৭৪ রান করে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন রিজওয়ান। তবুও এই ডানহাতিকে ওপেনিংয়ে পছন্দ হচ্ছে না পাকিস্তানের সাবেক পেসারের।

শারজিল এবং ফখরের মাঝে সাইদ আনোয়ার ও আমির সোহেলের জুটির ছায়া দেখতে পান শোয়েব। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদ রিজওয়ান যত ভালোই খেলুক না কেন, টি-টোয়েন্টিতে শারজিলের জায়গা পাওয়া উচিত। শারজিল এবং ফখর মিলে সাইদ আনোয়ার ও আমির সোহেলের মতো জুটি গড়তে পারবে।’

সাম্প্রতিক সময়ে অসাধারণ ব্যাট করছেন ফখর। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে জোড়া সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) রান পেয়েছেন শারজিল। হার্ডহিটিং ব্যাট করতে পাকিস্তান দলে তার জুড়ি মেলা ভার। শোয়েব মনে করেন, এই দুজন ওপেনিং করলে প্রতিপক্ষকে গুড়িয়ে দিতে পারবেন।

pcb logo 2 6

শোয়েব বলেন, ‘শারজিল এবং ফখর দুজনই আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান। তারা প্রতিপক্ষকে গুড়িয়ে দেওয়ার যোগ্যতা রাখে। পাকিস্তানকে এখন বিধ্বংসী ক্রিকেটের কথা চিন্তা করতে হবে। ক্রিকেট এখন আর ১৭০-১৮০ রানের খেলা নয়। যে কোনো দলই এখন ২০০র বেশি রানের জন্য খেলতে নামে।’

রিজওয়ানের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস বলেন, ‘ফখর-শারজিল ওপেনিং করতে নামবে। তিন নম্বরে বাবর আজম। তারপর মোহাম্মদ হাফিজ, রিজওয়ান এবং হায়দার আলি। আমি আসিফ আলিকে মিস করি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট পাওয়ার হিটিংয়ের খেলা, যেটা আসিফ খুব ভালো পারে।’