advertisement
আপনি দেখছেন

৫০ ওভারের ক্রিকেটকে বিদায় বললেন ২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ডকে শ্বাসরুদ্ধকর জয় এনে দেওয়া তারকা অলরাউন্ডার কেভিন ও ব্রায়েন। তবে টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি চালিয়ে যাবেন ৩৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

kevin o brienকেভিন ও ব্রায়েন

নিজের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়েই ওয়ানডে থেকে বিদায় নিয়েছেন ও ব্রায়েন। তবে সিদ্ধান্তটা যে মোটেও সহজ ছিল না সেটাও জানালেন এই ক্রিকেটার, ‘১৫ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার পর আমার মনে হয়েছে, ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার এখনই সঠিক সময়। দেশের হয়ে ১৫৩ ম্যাচে প্রতিনিধিত্ব করা দারুণ সৌভাগ্যের। এই স্মৃতি সারাজীবন মনে রাখবো।’

‘অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত আমার জন্য সহজ ছিল না। তবে বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় মনে হয় না, অতীতের মতো আমি ওয়ানডে দলে ভূমিকা রাখতে পারব। ওয়ানডে সংস্করণের প্রতি তাড়না এবং ভালোবাসা আগের মতো নেই।’

২০১১ সালের বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো বিশ্ব ক্রিকেটের নজরে আসেন ও ব্রায়েন। ব্যাঙ্গালুরুতে ইংল্যান্ডের দেওয়া ৩২৭ রানের জবাবে ১০৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে আয়ারল্যান্ড। এরপর ব্যাট হাতে ঝড় তুলে সব হিসেব পাল্টে দেন ও ব্রায়েন। তাতেই ৫ বল হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় আইরিশরা।

সেদিন সাজঘরে হাঁটার আগে ৬৩ বলের মোকাবেলায় ১৩ চার এবং ৬ ছক্কায় ১১৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন ও ব্রায়েন। শুধু তাই নয়, ৫০ বলে সেঞ্চুরি করে বনে যান বিশ্বকাপের দ্রুততম সেঞ্চুরিয়ান।

২০০৬ সালে বেলফাস্টে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ানডে অভিষেক হয় ও ব্রায়েনের। ১৫৩ ওয়ানডেতে ২৯.৪২ গড়ে তার সংগ্রহ ৩ হাজার ৬১৯ রান। ২ সেঞ্চুরির পাশাপাশি ফিফটির সংখ্যা ১৮টি। এছাড়াও পেস বোলিংয়ে ৩২.৬৮ গড়ে নিয়েছেন ১১৪ উইকেট।