advertisement
আপনি দেখছেন

২০০৭ সালে প্রথমবারের মতো আয়োজিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলেছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশ ভারত এবং পাকিস্তান। সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কাতার আয়োজিত আসন্ন কুড়ি ওভারের বিশ্ব মঞ্চের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ফের দেখা যাবে এই দুই দলকে, এমনটাই মনে করেন সাবেক তারকা ক্রিকেটার শোয়েব আখতার।

pakistan vs india পাকিস্তান বনাম ভারত

২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠলেও রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় পাাকিস্তানকে। পরের আসর অর্থ্যাৎ ২০০৯ সালে ইউনুস খানের নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন হয় দলটি। ওটাই ছিল পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সর্বশেষ ফাইনাল।

টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের সাম্প্রতিক ফর্ম খুব একটা ভালো নয়। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কয়েকদিন আগে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হেরেছে তারা। তবুও সাবেক গতি তারকা জোর দিয়েই বলছেন টি-টোয়েন্টিতে এখনও অনেক কিছু করে দেখাতে পারে বাবর আজমের দল।

pakistan vs india 2

এক সাক্ষাৎকারে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস বলেন, ‘ইংল্যান্ডের কাছে পাকিস্তান সিরিজ হারলেও সবকিছু শেষ হয়ে যায়নি। তারা এখনও অনেক কিছু করার যোগ্যতা রাখে। মনে রাখবেন, এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলবে পাকিস্তান এবং ভারত।’

২০০৯ সালে আইসিসির দেওয়া নিষধাজ্ঞার কারণে দীর্ঘদিন সংযুক্ত আরব আমিরাকে নিজেদের হোম ভেন্যু হিসেবে ব্যবহার করেছে পাকিস্তান। তাই সেখানকার কন্ডিশন সম্পর্কে বেশ ভালো ধারণা আছে তাদের। শোয়েব বিশ্বাস করেন, এই সুবিধাটা কাজে লাগাবে পাকিস্তান।

শোয়েব বলেন, ‘পাকিস্তান দল দীর্ঘদিন ধরেই সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলছে। সেখানকার কন্ডিশন তাদের কাছে হাতের তালুর মতো চেনা। এখানকার উইকেটে ভিন্নরকম স্পিন হয়। ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা এখানে লড়াই করে রান করে, নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটাররা সহজেই আউট হয়। তাই আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত, পাকিস্তান এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের নক আউট পর্বে খেলার অনেক সুযোগ থাকবে।’