advertisement
আপনি দেখছেন

ক্রিকেটের সবচেয়ে ছোট ফরম্যাট টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর এই ফরম্যাট থেকে ইস্তফা দেবেন তিনি। তিনি নিজেই এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

virat kohli india cricketerবিরাট কোহলি, ফাইল ছবি

ভারতের গণমাধ্যম বলছে, কোহলি যেকোনো এক ধরনের ক্রিকেটে যে দায়িত্ব ছাড়বেন সেটা নিয়ে অনেক দিন ধরেই গুঞ্জন চলে আসছিল। অবশেষে সেটাই সত্যি হল। অবশ্য গত কয়েক বছর টি-টোয়েন্টিতে কোহলির চেয়ে অনেক বেশি দাপট দেখাচ্ছিলেন রোহিত শর্মা। বিরাট কোহলির নেতৃত্ব ছাড়ার পেছনে সেটাও একটা বড় কারণ বলে মনে করছে ক্রিকেট মহল।

এ নিয়ে আজ বৃহস্পতিবার টুইটারে দীর্ঘ বিবৃতি দিয়েছেন কোহলি। লিখেছেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরই অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়াবেন তিনি। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি, সচিব জয় শাহ, কোচ রবি শাস্ত্রী এবং রোহিত শর্মার সঙ্গে কথা বলেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও উল্লেখ করেছেন ভারত অধিনায়ক।

টুইট বার্তায় কোহলি লিখেছেন, আমি গর্বিত এ জন্য যে, দেশের প্রতিনিধিত্ব করা ও নিজের ক্ষমতা অনুযায়ী দেশের জন্য নেতৃত্ব প্রদান করেছি। ভারতীয় ক্রিকেট দলের সব সমর্থককে ধন্যবাদ। সতীর্থ, কোচিং স্টাফ, কোচ এবং সেই সমস্ত ভারতবাসীকে আমার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ যারা আমাদের জন্য যারা প্রার্থনা করেছেন।

কোহলি আরও বলেন, খেলাধুলার ক্ষেত্রে ওয়ার্কলোড খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। গত ৮ থেকে ৯ বছর ধরে ক্রিকেটার হিসেবে এবং ৫ থেকে ৬ বছর ধরে ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে অধিনায়ক হিসেবে অসহনীয় চাপ নিতে হয়েছে। তাই এই মুহূর্তে টেস্ট ও একদিনের ক্রিকেটে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে আমার কিছুটা সময় দরকার। নিজের সর্বস্ব দিয়েছি টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে। ব্যাটসম্যান হিসেবেও এখন নিজের সেরাটা দেব।

সবার সঙ্গে কথা বলে যে তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেটাও জানিয়ে দিয়েছেন এদিন। লিখেছেন, এই কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে অনেক সময় লেগেছে আমার। যারা আমার কাছের মানুষ- সেই কোচ রবি শাস্ত্রী এবং রোহিতের সঙ্গে কথা বলেই আমি টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়াব। পাশপাশি নিজের পূর্ণ ক্ষমতা দিয়েই ভবিষ্যতে ভারতীয় ক্রিকেটের সেবা করে যাব।