advertisement
আপনি দেখছেন

দুদিন পর শুরু হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর। ছোট ফরম্যাটের বিশ্বমঞ্চকে ঘিরে ইতোমধ্যে স্বপ্ন বুনতে শুরু করেছেন বিভিন্ন দেশের ক্রিকেটাররা। পিছিয়ে নেই মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। বাংলাদেশ দলের এই সিমিং অলরাউন্ডার জানালেন, আসন্ন বিশ্বকাপে ‘বিশেষ কিছু’ করে দেখাতে চান, যা স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

mohammad saifuddin batমোহাম্মদ সাইফুদ্দিন

২০১৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন সাইফুদ্দিন। এবার আরব আমিরাত এবং ওমানের মাটিতে টি-টোয়েন্টির বিশ্বমঞ্চের স্বাদ নেবেন লক্ষ্মীপুরের এই ক্রিকেটার। গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপে খেলার অনুভূতি সবসময়ই বিশেষ কিছু। ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেললেও এবারই প্রথম দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবো। নিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটা স্মরণীয় করে রাখতে চাই।’

সাইফুদ্দিন মনে করেন, অলরাউন্ডার হওয়ায় দলে তার জন্য অবদান রাখা সহজ হবে, ‘আমার বোলিং খারাপ হলে চেষ্টা থাকে ব্যাটিং দিয়ে পুষিয়ে দেওয়ার। আবার ব্যাটিং খারাপ হলে বোলিং দিয়ে পুষিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি। দুটোই খারাপ হলে পরের ম্যাচে চেষ্টা থাকে যেন দুটোই ভালো হয়। সবমিলিয়ে বিষয়টাকে ইতিবাচকভাবেই নিয়ে থাকি। দুটি রোল থাকায়, দলে অবদান রাখার ক্ষেত্রে আমার জন্য এটা দারুণ সুযোগ।’

mohammad saifuddin celebrationসাইফুদ্দিনের ট্রেডমার্ক উদযাপন

বিশ্বকাপে কত রান করবেন বা কত উইকেট নেবেন, এমন কোনো লক্ষ্য ঠিক করেননি সাইফুদ্দিন।  তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের জন্য নির্দিষ্ট কোনো সংখ্যা ঠিক করিনি যে, এত রান কিংবা এত উইকেট নিতে হবে। ভালো করার চেষ্টা অবশ্যই থাকবে।’

‘ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে আমার দায়িত্বটা থাকে পাওয়ার হিটিংয়ে দলের স্কোর কিছুটা বাড়িয়ে নেওয়া। ওই চেষ্টাই থাকবে বিশ্বকাপে। এই চেষ্টা করতে গিয়ে দেখা যাবে ২ বলে আমার রান ৭। সেটা করতে পারলে আমি নিজেকে সফল মনে করবো।’ বলেন এই সিমিং অলরাউন্ডার।