advertisement
আপনি দেখছেন

সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞার কারণে হুট করেই ২০১৯ সালে টেস্ট দলের নেতৃত্ব এসেছিল মুমিনুল হকের কাঁধে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম চক্রে সময়টা ভালো কাটেনি বাংলাদেশের। মুমিনুল দলে পাননি সিনিয়র ক্রিকেটারদের নিয়মিতভাবে। ইনজুরি, বিশ্রাম মিলে দলটা পূর্ণ শক্তির ছিল না।

mominul haque press conferenceসংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল হক

এবার টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় চক্রের শুরুতেও বাংলাদেশ দলটা তারুণ্যে ভরা। ইনজুরির কারণে তিন সিনিয়র ক্রিকেটার নেই। সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, তাসকিন আহমেদরা দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। কিন্তু তিনজনকে ছাড়াই কাল পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও অবসরে চলে গেছেন।

বৃহস্পতিবার টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক বলেছেন, সিনিয়রদের অভাবটা স্পষ্ট। কিন্তু তার মতে, আগামী দুটি সিরিজেই টেস্টে দলের ভবিষ্যত স্পষ্ট হয়ে যাবে। তবে তরুণদের উপর ভরসা রাখতে চান তিনি।

আজ সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল বলেছেন, ‘টেস্টে ম্যাচে সব সময় অভিজ্ঞদের দরকার বেশি হয়। সাকিব ভাই, তামিম ভাই, তাসকিন অভিজ্ঞরা না থাকলে একজন তরুণ অধিনায়ক হিসেবে আমার কাজটা কঠিন হয়ে যায়।’

এমন অবস্থায় দলকে এগিয়ে নিতে মুশফিক-লিটন এবং নিজের বড় দায়িত্ব দেখছেন মুমিনুল। তিনি বলেন, ‘আমাদের চারজন ক্রিকেটার নেই। এটা চ্যালেঞ্জিং হবে। আমার আর মুশফিক ভাইয়ের বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। তবে বাংলাদেশ দলের টেস্ট ক্রিকেট কোন দিকে যাচ্ছে, এই সিরিজ ও পরের সিরিজে সেটা দেখতে পাবেন।’