advertisement
আপনি পড়ছেন

প্রথম দিনের শেষ সেশনের পুনরাবৃত্তি ঘটতে যাচ্ছিল দ্বিতীয় দিনের শুরুতেও। এদিন প্রথম সেশনটা প্রায় উইকেটশূন্যভাবেই কাটিয়ে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু শেষদিকে এসে আঘাত হানেন নাঈম হাসান। এই স্পিনারের জোড়া আঘাতে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছে বাংলাদেশ। অবশ্য ফেরানো যায়নি অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে। এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের ব্যাটে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহের পথে এগোচ্ছে লঙ্কানরা।

bd vs sl 2nd dayশেষদিকে দুই উইকেট পেয়েছেন নাঈম

২৫৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে শ্রীলঙ্কা। ম্যাথুস ১১৪ এবং চান্দিমাল ৩৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। আগের দিন এই দুজনের ৭৫ রানের জুটি আজ প্রথম ঘণ্টা না পেরোতেই তিন অঙ্কের ঘর পার করে।

দিনের শুরুতেই বল করতে আসা শরিফুল ইসলাম, সাকিব আল হাসানদের বেশ দেখেশুনেই খেলেছেন তারা। ১১৪তম ওভারে নাঈমের শিকার হওয়ার আগে ৬৬ রান করেন চান্দিমাল। সেই সাথে ভাঙে ১৩৬ রানের জুটি। একই ওভারে নিরোশান ডিকওয়েলাকেও ফেরান নাঈম। ৩২৭ রানে ৬ উইকেট হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা।

mathews ton১৪৭ রানে অপরাজিত আছেন ম্যাথুস

প্রথম সেশনে বাংলাদেশের বোলারারা উইকেট তুলে নেওয়ার মতো তেমন কোনো চাপ তৈরি করতে পারেনি শ্রীলঙ্কার ওপর। তবে স্বাগতিকদের আঁটসাঁট বোলিংয়ের কারণে রান রেট বাড়িয়ে নিতে পারেননি ম্যাথুস এবং চান্দিমাল। অধিনায়ক মুমিনুল হক সৌরভের কোনো পরিকল্পনা কাজে আসেনি। অবশেষে নাঈমের জোড়া শিকারে হালে পানি পেয়েছে স্বাগতিকরা।

ম্যাথুস-চান্দিমালের জুটি বিচ্ছিন্ন করা যেতো প্রথম ঘণ্টাতেই। দিনের চতুর্থ ওভারে খালেদ আহমেদের একটি ডেলিভারি ম্যাথুসের ব্যাটে লেগে লিটন কুমার দাসের গ্লাভসে বন্দি হয়। কিন্তু এটা কেউ বুঝতে না পারায় আবেদন করেননি। ব্যক্তিগত ১১৯ রানে জীবন পান সাবেক লঙ্কান অধিনায়ক। 

১৪৭ রানে অপরাজিত আছেন ম্যাথুস। তার সঙ্গী রমেশ মেন্ডিস ১ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামবেন। ৮৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে এখন পর্যন্ত বল হাতে সবচেয়ে সফল নাঈম।