advertisement
আপনি পড়ছেন

আজাদ কাশ্মিরের ক্রিকেট লিগে খেলার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হবে বিরাট কোহলিকে। যদি খেলতে না চান, অন্তত অতিথি হিসেবে যেন থাকেন, সে আহ্বান জানানো হবে তার প্রতি। কাশ্মির প্রিমিয়ার লিগের এ পদক্ষেপের পেছনে সাবেক পাক অধিনায়ক রশিদ লতিফ রয়েছেন বলে জানা যায়। খবর হিন্দুস্তানটাইমস।

kohli and kplবিরাট কোহলি ও কেপিএল

গত বছরই পাকিস্তান অধিকৃত আজাদ কাশ্মিরে চালু হয়েছে টি-২০ ক্রিকেট লিগ, যার নাম দেয়া হয়েছে কাশ্মির প্রিমিয়ার লিগ বা কেপিএল। এই লিগ নিয়ে তীব্র আপত্তি জানায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড, বিসিসিআই। তারা টুর্নামেন্টটিকে স্বীকৃতি দেয়নি। শুধু তাই নয়, বিদেশি ক্রিকেটাররা যেন কোনোভাবেই এ টুর্নামেন্টে যুক্ত না হন, সেজন্য বেশ কিছু নতুন নিয়মও করেছে তারা।

এই টুর্নামেন্টে খেলার আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে কোহলির মতো তারকাকে! শোনা যাচ্ছে, দ্রুতই বিরাট কোহলিকে চিঠি লিখে ওই লিগে খেলতে অনুরোধ করবেন আয়োজকরা। এমনকি বিসিসিআইকেও এ ইস্যুতে চিঠি লেখা হবে। এ খবরে মোটামুটি স্তম্ভিত হয়ে পড়েছে ক্রিকেট বিশ্ব।

virat kohli 12বিরাট কোহলি

জানা গেছে, কোহলিকে কাশ্মির প্রিমিয়ার লিগে আমন্ত্রণ জানানোর পরিকল্পনা সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়ক রশিদ লতিফের। লিগটির ডিরেক্টর অব ক্রিকেট অপারেশনসের দায়িত্ব পালন করছেন রশিদ।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, কোহলিকে খেলার আমন্ত্রণ জানানোর পেছনে কোনো ধরনের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। এর মাধ্যমে আসলে আমরা এই বার্তা দিতে চাই যে, খেলা সবকিছুর ঊর্ধ্বে। তাই কোহলিকে চিঠি লেখার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সে চাইলে এ লিগে খেলতে পারে, আবার চাইলে প্রধান অতিথি হিসাবেও আসতে পারে। আমরা দুই দেশের মানুষের মধ্যে সম্প্রতির বার্তা ছড়িয়ে দিতে চাইছি।

অবশ্য এ ধরনের আমন্ত্রণ যতই জানানো হোক না কেন, তাতে কোহলির খেলার কোনো সম্ভাবনা তৈরি হবে না। কারণ বিসিসিআই ভারতীয় পুরুষ ক্রিকেটারদের বাইরের কোনো লিগে খেলার অনুমতি দেয় না। তা নিয়ে রশিদ লতিফের অবশ্য তেমন চিন্তা নেই। তিনি বলেন, আমাদের কাজ কোহলিকে আমন্ত্রণ জানানো, সেটা আমরা করব। আসা না আসাটা একেবারেই তার নিজের সিদ্ধান্ত।