advertisement
আপনি পড়ছেন

টানা কয়েক ম্যাচ খেলার পর আইপিএলের চলমান আসরে দিল্লি ক্যাপিটালসের একাদশ থেকে বাদ পড়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান। ভারতে সাইড বেঞ্চে দিন কাটলেও বাংলাদেশে বাঁহাতি এ পেসারকে নিয়ে আলোচনা থামছে না। টেস্ট ক্রিকেটে তাকে খেলানোর দাবি ধীরে ধীরে জোরালো হচ্ছে।

mostafiz 4 wicketওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্ট খেলতে পারেন মোস্তাফিজ

বিশেষ করে একই সময়ে দুই ফ্রন্ট লাইন পেসার তাসকিন আহমেদ ও শরীফুল ইসলামের ইনজুরিতে পড়েছেন। তাদের দুজনকে পাওয়া যাবে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দুই টেস্টে। তাতেই মোস্তাফিজকে খেলানো নিয়ে কথা উঠছে।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে ডাকা হচ্ছে না মোস্তাফিজকে। শরীফুল ছিটকে গেলেও এবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদ, শহীদুল ইসলাম, রেজাউর রহমান রাজার ওপর ভরসা রাখছে দল। তবে পরের সিরিজে টেস্ট খেলবেন মুস্তাফিজ।

minhajul abedin nannuমিনহাজুল আবেদীন নান্নু

প্রধান নির্বাচক সাংবাদিকদের আজ এমন তথ্যই দিয়েছেন। বাংলাদেশের পরের সিরিজটা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। দুই টেস্ট, তিনটি করে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে খেলতে ক্যারিবিয়ানে যাবে বাংলাদেশ দল। জুনে উইন্ডিজদের বিরুদ্ধে দুই টেস্টের সিরিজে লাল বলের ক্রিকেটে দেখা যাবে কাটার মাস্টারকে।

চট্টগ্রামে আজ বৃহস্পতিবার টেস্টে মোস্তাফিজের ফেরার বিষয়ে নান্নু বলেছেন, ‘মোস্তাফিজের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে আগামী সিরিজ নিয়ে। নির্বাচন প্যানেল থেকে যেভাবে আলোচনা হয়, সেভাবে কথা হয়েছে। যখন কোনো খেলোয়াড় সেরা ফর্মে থাকে, তখন তাকে অবশ্যই দরকার হয়। যদি আমাদের ওকে দরকার হয়, অবশ্যই দলে অন্তর্ভুক্ত করব।’

অনেকদিন ধরেই টেস্ট দলে নেই মোস্তাফিজ। এমনকি বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে লাল বলের ফরম্যাটে রাখা হয়নি তাকে। ২০১৫ সালে টেস্ট অভিষেক হয়েছিল মুস্তাফিজের। বাংলাদেশের হয়ে গত বছর ফেব্রুয়ারিতে চট্টগ্রামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিলেন ২৬ বছর বয়সী এ পেসার।