advertisement
আপনি পড়ছেন

ঘরোয়া ক্রিকেটে যেমনই হোক, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এসে ভূমিকা বদলে গেছে বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেটারের। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগামীকাল শুরু হতে চলা দ্বিতীয় টেস্টে তেমন আরেকটি গল্প যুক্ত হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটে। এবার তেমন কিছুর চ্যালেঞ্জে পড়তে যাচ্ছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

mosaddek hossain soykotমোসাদ্দেক হোসেন সৈকত

ক্যারিয়ারজুড়েই মূলত মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক। পাশাপাশি টুকটাক অফ স্পিনও করেন। নিয়মিত না হলেও সীমিত ওভারের দুই ফরম্যাটে তার সাফল্য আছে বল হাতে। কিন্তু লঙ্গার ভার্সনে সাদামাটাই তিনি।

তিন টেস্টের ক্যারিয়ারে ১৫ ওভার বোলিং করে উইকেট পাননি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৪২ ম্যাচে ২৯ উইকেট পেয়েছেন, যেখানে তার সেরা বোলিং ৩৩ রানে ৪ উইকেট।

muminul haqueমুমিনুল হক

তিন বছর পর টেস্ট দলে ফিরেছেন মোসাদ্দেক। আগামীকাল তার প্রত্যার্বতন হতে পারে। লঙ্কার বিপক্ষে একাদশে তার ভূমিকায় ভিন্নতা আসছে। ব্যাটিংটা পারলেও বল হাতে অফ স্পিনারের দায়িত্ব পালন করতে হবে তাকে।

ইনজুরির কারণে শ্রীলঙ্কা সিরিজে নেই মেহেদি হাসান মিরাজ। নাঈম হাসানও ইনজুরিতে ছিটকে গেছেন দ্বিতীয় টেস্ট থেকে। নাঈমের বদলিও নেওয়া হয়নি দলে।

সব মিলিয়ে স্বীকৃত অফ স্পিনারের দায়িত্বে দেখা যাবে মোসাদ্দেককে। ২৬ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার আজ রোববার অনুশীলনে দীর্ঘ সময় বোলিং করেছেন। ব্যাটিংটা করেছেন অনেক পরে। যেন একাদশের ছবিটাই দেখা গেল অনুশীলনে।

রোববার ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মুমিনুল হকের কথায়ও ইঙ্গিত মোসাদ্দেক আগামীকাল খেলবেন। তিনি বলেছেন, ‘এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। হয়ত ওর (মোসাদ্দেক) খেলার সম্ভাবনাই বেশি।’

সাকিব-তাইজুলের সঙ্গে স্পিন আক্রমণে মোসাদ্দেককে সুবিধাজনক সময়ে ব্যবহারের চিন্তা মুমিনুলের। তিনি বলেন, ‘স্পিন বিভাগ দেখুন- তাইজুল গত এক-দুই বছর ধরে খুব ভালো বল করছে। সাকিব ভাই তো গত ম্যাচে খুব ভালো করেছেন। মোসাদ্দেক খেললে ওর ভূমিকা হয়ত একটু ভিন্ন হবে। মোসাদ্দেক যদি খেলে ওকে ভালোভাবে, বুদ্ধিমত্তার সাথে ব্যবহার করাটাও গুরুত্বপূর্ণ। সাকিব ভাই, তাইজুল যেহেতু আছে, ওদের নিয়ে আমি অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। আশা করি কোনো সমস্যা হবে না।’