advertisement
আপনি পড়ছেন

ক্রিকেটের কাঠামো পরিপূর্ণ ছিল না, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের চর্চাও অপ্রতুল ছিল। কিন্তু দেশের আপামর মানুষের খেলাটার প্রতি ছিল নিখাদ ভালোবাসা। সঙ্গে এই তুমুল জনপ্রিয়তাই খেলাটার বিকাশের অপার সম্ভাবনার দুয়ার খুলেছিল। এসবকে পুঁজি করেই টেস্ট স্ট্যাটাস পেয়েছিল বাংলাদেশ।

bd test 22 yearsটেস্ট ক্রিকেটের ঐতিহাসিক যাত্রা ও আমিনুল ইসলাম বুলবুলের সেঞ্চুরি

২২ বছর আগে আজকের দিনে (২৬ জুন) ক্রিকেটের অভিজাত আঙিনায় পা রাখে বাংলাদেশ। ২০০০ সালের ২৬ জুন আইসিসির পূর্ণ সদস্য হওয়ার গৌরবের খবরটা পেয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আইসিসির সভায় সিদ্ধান্ত হয় বাংলাদেশকে টেস্ট স্ট্যাটাস দেওয়ার।

এই অর্জনে বড় অবদান ছিল ভারতের প্রয়াত সংগঠক জগমোহন ডালমিয়ার। সাত বছর আগে অনন্তলোকে পাড়ি জমিয়েছেন তিনি। ডালমিয়ার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ২২ বছর আগে আইসিসির পূর্ণ সদস্য হয়েছিল বাংলাদেশ।

bcb logo 5বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড

তৎকালীন বিসিবি সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী ও বোর্ডের অন্যান্যদের চেষ্টায় পাঁচ মাস পরই প্রথম টেস্ট খেলতে নেমে যায় বাংলাদেশ দল। নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের নেতৃত্বে ২০০০ সালের ১০ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয়েছিল বাংলাদেশের।

অভিষেকেই সৌরভ গাঙ্গুলির দলকে প্রথম ইনিংসে চমকে দিয়েছিল টাইগাররা। আমিনুল ইসলাম বুলবুলের ঐতিহাসিক সেঞ্চুরিতে ৪০০ রান করেছিল স্বাগতিকরা। যদিও দ্বিতীয় ইনিংসে চরম ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্যাচটা হেরে যায় দুর্জয় বাহিনী।

তারপর গত ২২ বছরের পথ চলায় টেস্টে বাংলাদেশের সংগ্রাম অব্যাহত রয়েছে। এত বছরেও প্রতিষ্ঠিত শক্তি হতে পারেনি সাদা পোশাকের ক্রিকেটে। বরং এখনো নবীশ দলের প্রতিচ্ছবি মাঝেমধ্যেই ফুটে উঠছে। কালে-ভদ্রে কিছু অর্জন-সাফল্য এসেছে, কিন্তু মোটা দাগে লাল বলের ক্রিকেটে ধুঁকতে থাকা বাংলাদেশই বারবার ধরা দিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের সামনে।

সাকিব আল হাসানদের চলমান ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের টেস্ট সিরিজটাই এর জলজ্যান্ত প্রমাণ। ক্যারিবিয়ানে দুই টেস্টের আগেও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে, ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ বাংলাদেশ দল। ব্যাটিং ব্যর্থতায় ডুবছে দেশের টেস্ট ক্রিকেকটা।

সেন্ট লুসিয়া টেস্টের আগে ১৩৩ ম্যাচে টাইগারদের জয় মাত্র ১৬টি, হার ৯৯টি এবং ড্র হয়েছে ১৮টি ম্যাচ। টেস্ট স্ট্যাটাস প্রাপ্তির ২২ বছর পূর্তির দিনে বাংলাদেশকে চোখ রাঙাচ্ছে পরাজয়ের সেঞ্চুরি!