advertisement
আপনি পড়ছেন

ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিটি উইকেট নিতে কত ঘামই না ঝরাতে হয়েছে বাংলাদেশের বোলারদের। ক্লান্তিকর ১২৬.৩ ওভার বোলিং করে স্বাগতিকদের অলআউট করেছেন খালেদ আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজরা। সেন্ট লুসিয়ায় রোববার ম্যাচের তৃতীয় দিনের লাঞ্চের পর ৪০৮ রানে থেমেছে তাদের প্রথম ইনিংস।

again batting collapse bangladesh on the verge of innings defeatফের ব্যাটিং বিপর্যয়, ইনিংস হারের শঙ্কা

১৭৪ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। ড্যারেন স্যামি ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ওই একই উইকেটের চিত্রপট বদলে গেল মিনিট বিশেকের ব্যবধানে। বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে নামতেই উইকেট যেন ব্যাটসম্যানদের মৃত্যুকূপ হয়ে ধরা দিলো। টপাটপ উইকেট পড়া শুরু হলো। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে সফরকারীরা।

এবার ইনিংস হারের শঙ্কাই উঁকি দিল সেন্ট লুসিয়ায়। কারণ দ্বিতীয় দফা বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার আগে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বসেছে টাইগাররা। বৃষ্টির কারণে চা বিরতি ঘোষণা করা হয়। মাত্র ৮.৫ ওভারেই কেমার রোচের তোপে সাজঘরে ফিরে গেছেন তামিম ইকবাল, মাহমুদুল হাসান জয় ও আনামুল হক বিজয়।

বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার আগে নাজমুল হোসেন শান্ত ১০ রানে ব্যাট করছেন। তখনও ১৪২ রানে পিছিয়ে ছিল বাংলাদেশ।

আউট হওয়া তিন ব্যাটসম্যানই রোচকে উইকেট দিয়েছেন। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই কেমার রোচের ২৫০তম শিকারে পরিণত হন তামিম (৪)। অফ স্ট্যাম্পের বাইরের বলে ব্যাট চালিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন তিনি। বলটা বাড়তি বাউন্স করেছিল, ব্যাট পেতে দেন জয়, বল স্লিপে ব্ল্যাকউডের হাতে জমা পড়ে। তিনি ১৩ রান করেন। পরে বিজয় (৪) এলবির ফাঁদে পড়েন।