advertisement
আপনি পড়ছেন

কয়েক বছর ধরেই ফর্ম আর আত্মবিশ্বাসে বৃহস্পতির তুঙ্গে আছেন জস বাটলার। সদ্য সমাপ্ত নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজেও ব্যাট হাতে আগুন ঝরিয়েছেন বিধ্বংসী এই ব্যাটার। দুরন্ত পারফরম্যান্স ও অভিজ্ঞতার পুরস্কারটা অবশেষে পেলেন তিনি। ইংল্যান্ডের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক নির্বাচন করা হয়েছে এই কিপার-ব্যাটারকে।

buttler runs out martin guptill to crown england champions

বৃহস্পতিবার রাতে নতুন নেতৃত্বের খবরটি নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইসিবি জানায়, ইয়ন মরগানের স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে বাটলারকে। দুদিন আগে আচমকা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন মরগান। তার নেতৃত্বে ২০১৯ সালে স্বপ্নের ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতেছিল ইংলিশরা।

নেতৃত্ব পাওয়ার পর বাটলার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সদ্যই সরে দাঁড়ানো অধিনায়ক মরগানের প্রতি। তিনি বলেছেন, ‘টানা সাত বছর ধরে দুর্দান্ত নেতৃত্ব এবং দায়িত্বশীলতার জন্য ইয়ন মরগানকে ধন্যবাদ দিতে চাই। এই সময়টা আমাদের জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তার অধীনে খেলতে পারাটা দারুণ অভিজ্ঞতা ছিল। তার কাছ থেকে আমি অনেক কিছুই শিখেছি।’

বাটলার যোগ করেন, ‘ইয়নের কাছ থেকে নেতৃত্ব পাওয়াটা অনেক সম্মানের। সামনের দিনের চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য তার কাছ থেকেই আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি। আগামী সপ্তাহে ভারত এবং জুলাইর শেষ দিকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আমাদের সিরিজ রয়েছে। আমি নতুন ভূমিকা শুরু করতে মুখিয়ে আছি। আপনি আপনার দেশকে নেতৃত্ব দেবেন এটা অনেক সম্মানের।’

অবশ্য এর আগেও ইংল্যান্ডের অধিনায়কের ভূমিকায় দেখা গেছে বাটলারকে। তবে সেটা ছিল সাময়িক; ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে। বিধ্বংসী এই ব্যাটারের অধীনে ইংলিশরা নয়টি ওয়ানডে এবং পাঁচটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে। ২০১১ সালে দুই সংস্করণেই অভিষেক হয় তার। এখন অবধি ইংলিশদের জার্সিতে ১৫১ ম্যাচে দশ সেঞ্চুরিতে ৪১২০ রান করেছেন বাটলার। আর কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে ৮৮ ম্যাচে ২১৪০ রান আছে তার। ইংল্যান্ডের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে সব সংস্করণে সেঞ্চুরির কীর্তি আছে বাটলারের।