advertisement
আপনি পড়ছেন

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে রোনালদোর কাছেই হেরেছিল বায়ার্ন মিউনিখ। দ্বিতীয় লেগে এসেও একই ঘটনার পূনরাবৃত্তি। তবে দ্বিতীয় লেগের গল্পটা আর একটু নির্দয় জার্মানির ক্লাবটির জন্য। গতকাল দ্বিতীয় লেগে দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক করেছেন রোনালদো। যাতে ৪-২ গোলের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে বায়ার্ন মিউনিখকে। এতে দুই লেগ মিলিয়ে ৬-৩ ব্যবধানে জিতে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ।

ronaldo vs villarreal

কোয়ার্টর ফাইনালের দুই লেগ মিলিলে রিয়ালের ছয় গোলের পাঁচটিই করলেন রোনালদো। গতকালের তিন গোলে অনন্য একটা রেকর্ডও হলো পর্তুগিজ যুবরাজের। কাল তিন গোল করে প্রথম ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসে গোলের সেঞ্চুরি করলেন রোনালদো। এই হ্যাটট্রিকটা হয়তো অনেকদিনই মনে রাখবেন রোনালদো।

তবে মনে রাখার মতো হ্যাটট্রিকের ম্যাচে কিন্তু কম পরীক্ষা দিতে হয়নি রোনালদোকে, রিয়াল মাদ্রিদকেও। ম্যাচের প্রথমার্ধে গোলই আদায় করতে পারেনি রিয়াল। সান্তিয়াগোতে ম্যাচের প্রথম বাঁশি বাজার সাথে সাথেই যে রিয়ালের উপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল বায়ার্ন। জার্মানির ক্লাবটিও অবশ্য প্রথমার্ধে গোল পায়নি।

তবে ম্যাচের প্রথম গোলটা তাদেরই। ৫৩ মিনিটে রবার্ট লেভানডফস্কির পেনাল্টি গোলে ১-০ তে এগিয়ে যায় বায়ার্ন। গোল নেই নেই করে যেই গোলের দেখা মিলল, তারপর গোল উৎসব চলতেই থাকল ম্যাচে। ৭৬ মিনিটে নিজের প্রথম গোল করেন রোনালদো। এক মিটির পর সার্জিও রামোস শিশুশূলভ এক ভুল করে নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দিলেও দাপুটে জয় পেতে এরপর আর কষ্ট করতে হয়নি রিয়ালকে।

রোনালদে জ্বলে উঠলেন যে! অতিরিক্ত সময়ের ১০৪ ও ১০৯ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় ও তৃতীয় গোল করেন রোনালদো। মার্কো আসেনসিওর করা রিয়ালের অপর গোলটি ১১২ মিনিটে। শেষ পর্যন্ত ৪-২ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে রিয়াল মাদ্রিদ।