advertisement
আপনি পড়ছেন

বার্সেলোনার আক্রমণভাগের দুই তারকা লিওনেল মেসি ও নেইমার কর ফাঁকি সংক্রান্ত মামলায় রীতিমতো হাপিয়ে উঠেছেন। অনেকবার শোনা গেছে, কর ফাঁকি সংক্রান্ত মামলা থেকে বাঁচতে বার্সেলোনা ছাড়ারও চিন্তা করছেন মেসি-নেইমার। কিন্তু চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের সেরা তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে এতোদিন এই সংক্রান্ত কোন আলোচনা ঠিক ভাবে ছুঁতে পারেনি। রোনালদোর কর ফাঁকি বিষয়ে আলোচনা করার মতো কোন বিষয় সেভাবে পাওয়াই যায়নি। তবে যখন পাওয়া যাচ্ছে, মনে হচ্ছে বড় বিপদেই হয়তো পড়তে যাচ্ছেন রোনালদো।

ronaldo lost real

রোনালদোর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তা প্রমাণিত হলে, পাঁচ বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হতে পারে রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগাল তারকাকে! স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ দাবি তুলেছে, ২০১১ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে নিজের ইমেজ স্বত্বের আয় গোপন করেছেন রোনালদো। এই সময়ের মধ্যে ৮ থেকে ১৫ মিলিয়ন ইউরো কম আয় দেখিয়েছেন বলে অভিযোগ। ফলে মামলায় ঝুলতে হচ্ছে রোনালদোকে!

স্পেনের আইন অনুযায়ী গোপন করা অর্থের পরিমান ৬ লাখ ইউরোর বেশি হলে প্রতি বছরের জন্য মামলা করার এখতিয়ার আছে। আর অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রতি বছরের জন্য দ্ইু বছরের জন্য শাস্তি পেতে হবে। তিন অপরাধ মিলিয়ে শাস্তির মেয়াদ আরও এক বছর বেড়ে পাঁচ বছর হতে পারে।

স্পেনের আইন মতে সহিংস অপরাধ না হলে দুই বছরের কম সময়ের কারাদণ্ড হলে ভোগ করতে হয় না। লিওনলে মেসিকেও সেই আইনেই কারা ভোগ করতে হচ্ছে না (২১ মাস কারাদণ্ড হয়েছে মেসির)। তবে রোনালদোর যদি পাঁচ বছর কারাদণ্ড হয়ে যায় সেক্ষেত্রে কারা ভোগ করতে হবে।

তবে রোনাদোর মতো একজনকে কারা ভোগ না করার জন্য সব কিছুই হয়তো করা হবে। এরই মধ্যে কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, জরিমানার অর্থ পরিশোধ করে দিলে শাস্তির মেয়াদটা ১৫ মাসেও নামিয়ে আনা হতে পারে। সেক্ষেত্রে কারা ভোগ করতে হবে না রোনালদোকে।