advertisement
আপনি পড়ছেন

লুইস সুয়ারেজ ছিলেন না, তাতে কী! লিওনেল মেসি আর নেইমার তো আছেন। উরুগুয়ান স্ট্রাইকারের অনুপস্থিতিতে গতকাল মৌসুমের শেষ ম্যাচে মাঠে ফুল ফোটালেন মেসি-নেইমার জুটি। কোপা দেল রের ফাইনাল ম্যাচটার পুরো সময় নাচিয়ে ছেড়েছেন দেপোর্তিভো আলাভেসের ডিফেন্ডারদের। দুজনেই একটি করে গোল করেছেন। যাতে আলাভেসকে ৩-১ গোল হারিয়ে কোপা দেল রের শিরোপা জিতেছে বার্সেলোনা।

barca win copa del rey1

শিরোপা হাতে পাওয়ার পর একটু-আধটু উল্লাস- সামান্য শ্যাম্পেইন ছিটানো; এই যা। এর বাইরে খুব বেশি উল্লাস করতে দেখা গেল না মেসি-নেইমারদের। করার কথাও নয়, বার্সেলোনার মৌসুমটা বলতে গেলে শেষ হলো ব্যর্থতার বৃত্তে বন্দি হয়ে।  চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে, লা লিগার শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে। মৌসুমের শেষ দিনে এসে এই কোপা শিরোপা কি আর সেই ব্যর্থতা ঢাকতে পারে!

কোপা দেল রের শিরোপা জিতে অবশ্য সামনের মৌসুমে ভালো কিছু করার ঘোষণা দিয়ে রাখলেন মেসির। ফাইনালে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী আলাভেস অবশ্য শক্তির বিচারে বেশি পিছিয়ে ছিলো। কিন্তু অঘটন ঘটাতে ওস্তাদ দলটির বিপক্ষে চিন্তার কারণও ছিল। তবে সেই শঙ্কা উড়িয়ে জিতেছে বার্সলোনাই। 

প্রথম গোল পেতে আধাঘণ্টা দেরি হলেও আলাভেসকে সেভাবে পাত্তাই দেয়নি বার্সার দুই মহা-তারকা। ৩০ মিনিটে মেসি-নেইমার জুটির দুর্দান্ত বোঝাপড়াতেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। ডি-বক্সের একটু সামনে বল পেয়ে নেইমারকে বাড়িয়ে দৌড় দেন মেসি। নেইমার এমন জায়গায় পাস দেন মেসিকে, শুধু বাঁ-পাটা নড়িয়েই গোল পেয়ে যান তিনি। বাঁ-পায়ের বাঁকানো এক শটে বার্সাকে ১-০ তে এগিয়ে নেন আর্জেন্টিনা তারকা।

তিন মিনিট পরই অবশ্য থিও হার্নান্দেজের অসাধারণ এক ফ্রি-কিকে এই গোল পরিশোধ করে আলাভেস। তবে এ নিয়ে চিন্তায় পড়তে হয়নি বার্সা সমর্থকদের। ৪৫ মিনিটে জটলার মধ্যে বল পেয়ে বার্সেলোনাকে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে নেন নেইমার। তার মিনিট তিনেক পর পাকো আলকাসারের গোল।

মেসির দারুণ একটা পাস ডি-বক্সের ভেতর খুঁজে নিয়েছিল আলকাসারকে। ওই পাস থেকে ফাঁকায় দাঁড়ানো আলকাসার গোল করতে ভুল করেননি। ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা।

দ্বিতীয়ার্ধেও দাপট অব্যাহত রেখেছিলেন মেসি-নেইমাররা। গোলের সুযোগ তৈরি হয়েছিল একাধিক। কিন্তু কাজে লাগেনি একটিও। যাতে শেষ পর্যন্ত ৩-১ গোলের জয়েই নিশ্চিত হয় কোপা দেল রের শিরোপা।