advertisement
আপনি পড়ছেন

হোসে মরিনহোর প্রিয় একজন ছাত্র উইলিয়ান। চেলসিতে দ্বিতীয় অধ্যায়ে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারকে গুরুশিক্ষা দিয়েছিলেন পর্তুগিজ কোচ। মৌ উইলিয়ানকে ওল্ড ট্রাফোর্ডেও ফুটবলপাঠ করাতে চান।

willan and jose morinho

অনেকটা নিষ্প্রাণভাবে শেষ হতে চলেছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের এবারের মৌসুম। একচ্ছত্র আধিপত্যে লিগের মাঝপথ থেকেই নিজেদের ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গেছে ম্যানচেস্টার সিটি। সিটিজেনদের আর ধরতে পারেনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ম্যানচেস্টার দুই জায়ান্টের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান এখনো ১৬।

লিগ শিরোপা লড়াইয়ে সিটিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে না পারায় ইউনাইটেড কোচের মুণ্ডুপাত করেছেন সমর্থকরা। পরে অবশ্য কয়েক মিনিটের লিখিত বক্তব্যে ক্লাবের ভক্তকূলকে একহাত নিয়েছিলেন ‘স্পেশালওয়ান-অনলিওয়ান-হ্যাপিওয়ান’।

পাশাপাশি সিটির তারকাঠাসা দলের সঙ্গে ইউনাইটেডের পার্থক্যটা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন মরিনহো। নতুন মৌসুমের জন্য ক্লাব মালিককেও খেলোয়াড়দের বড় একটা তালিকা ধরিয়ে দিয়েছেন পর্তুগিজ কোচ। সেই তালিকায় চেলসির ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের নামটা সবার ওপরে। ব্রিটিশ মিডিয়ার খবর- পল পগবাকে ছেড়ে উইলিয়ানকে দলে টানতে চান ইউনাইটেড কোচ।

চেলসির একটি সূত্র জানিয়েছে উইলিয়ানের প্রতি মরিনহোর প্রবল আগ্রহের কথা। তার জন্য ৬০ মিলিয়ন পাউন্ডের একটা অংকও নাকি বসিয়ে রেখেছেন পর্তুগিজ কোচ। ক্লাবের সূত্রটি বলেছে, ‘মরিনহো উইলিয়ানকে নেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন। ইউনাইটেড কোচ তার বড় একজন সমর্থক। তিন সবসময়ই উইলিয়ানের প্রসংশা করে থাকেন।’

শুধু উইলিয়ান নয়, নগর ও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার সিটির সমশক্তির দল গড়তে আরো কয়েকজন ফুটবলারের ওপর মরিনহো রেখেছেন চাতক পাখির চোখ। টটেনহামের লেফট-ব্যাক ড্যানি রোজ, একই ক্লাবের ফুল-ব্যাক বেনজামিন ডেভিস, রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানে, শাখতার দানেৎস্কর মধ্যমাঠের সারথি ফ্রেড আপাতত মরিনহোর পছন্দের তালিকায় আছেন।

তবে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারকে ওল্ড ট্রাফোর্ডে আনা যে সহজ হবে না সেটা মরিনহো নিজেও বুঝতে পারছেন। কারণ অনেক আগেই স্ট্যামফোর্ড ব্রিজের ক্লাব লিখে রেখেছে ‘উইলিয়ান বিক্রির জন্য নয়।’ অবশ্য ট্রান্সফার উইন্ডোতে শেষ কথা বলে কিছু নেই। তাই একটা রোমাঞ্চ থেকেই যাচ্ছে।