advertisement
আপনি পড়ছেন

উসাইন বোল্ট। পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগতির মানব। সম্প্রতি জ্যামাইকান সেনসেশনের পরিচয়টা অবশ্য বদলে গেছে। এখন আর তিনি স্প্রিন্টার নন, একজন ফুটবলার। প্রতীক্ষার প্রহর গুনছেন অভিষেকের।

footballer usain bolt in practice

গত মাসের প্রান্ত সীমায় দক্ষিণ আফ্রিকার শীর্ষস্থানীয় ক্লাব মামেলোডি সানডাউন্সের সঙ্গে ফুটবলার হিসেবে চুক্তি করেছেন বোল্ট। ওল্ড ট্রাফোর্ডে প্রিয় ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটের বিপক্ষের ম্যাচ দিয়ে নতুন অধ্যায় শুরু হবে জ্যামাইকান গতিদানবের। তবে বোল্টের অভিষেক প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ দিয়ে হচ্ছে না, প্রদর্শনী এক ম্যাচে ফুটবলার হিসেবে যাত্রা শুরু করবেন তিনি।

তবে লড়াইয়ে নামার আগের নিজেকে ঝালিয়ে নিচ্ছেন বোল্ট। নিয়মিত অনুশীলন করছেন সানডাউন্সের হয়ে। পাশাপাশি সুযোগ বুঝে জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের জার্সিতে ট্রায়াল দেওয়ার কথা রয়েছে নয়টি অলিম্পিক স্বর্ণজয়ী কিংবদন্তির।

ফুটবলার হিসেবে যে তিনি বাজিমাত করতে মুখিয়ে আছেন সেটা আগে-পরে পায়ের কারুকার্যে দেখিয়েছেন বোল্ট। ফুটবলীয় দক্ষতায় বোল্টর পারদর্শীতা আরো বেড়েছে। মঙ্গলবার একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করে বিশ্বফুটবলকে নিজের সামর্থ্যের কথাটা আরো একবার জানিয়ে দিলেন ৩১ বছর বয়সী এই তারকা।

কদিন বাদেই আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচের বিরতি। এ সময় ডর্টমুন্ডের জার্সিতে ট্রায়াল দিতে পারেন বোল্ট। তবে এটা তার জন্য কঠিন কিছু হবে না বলে জানিয়েছে জার্মান গণমাধ্যমগুলো। কারণ বোল্ট এবং ডর্টমুন্ড দুই পক্ষেরই পৃষ্ঠপোষক ‘পুমা’।

অবশ্য ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে নিজেকে প্রমাণ করলেও বোল্ট ফুটবলার হিসেবে সফল হবেন না বলে অনেকেই খোঁচা মেরেছেন। সেই দলেরই একজন বার্সেলোনার প্রাক্তণ তারকা ফুটবলার জাবি হার্নান্দেজ।

বোল্টকে উদ্দেশ্য করে বিশ্বজয়ী স্প্যানিশ মিডফিল্ডার বলেছেন, ‘আমি উসাইন বোল্টকে ভালোবাসি। তিনি দারুণ একজন অ্যাথলেট। তার চেয়ে দ্রুতগতিতে দৌড়ানোর মতো কেউ নেই। কিন্তু বোল্টের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, তিনি কখনো ফুটবল মাঠে সফল হতে পারবেন না।’

বোল্ট অবশ্য হারার আগে হার মানার পাত্র নন। সবটুকু নিংড়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি ঝরেছে তার কণ্ঠে। তিনি বলেছেন, ‘শুরু থেকেই অনেকে বলে আসছে আমি নাকি পারব না। আমি মাঠে নিজেকে প্রমাণ করতে চাই।’

শেষ পর্যন্ত বোল্ট ফুটবলার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন কিনা সেটা বলে দেবে সময়। আপাতত ফুটবলার বোল্টের অভিষেকের দিকে চেয়ে আছেন তার ভক্তকূল।