advertisement
আপনি পড়ছেন

একে তো প্রথম লেগে ৩-১ গোলে হার। তার উপর ফিরতি লেগে নেই প্রাণভোমরা নেইমার। তবু অলৌকিক কিছুর আশায় ছিল প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। ফ্রেঞ্চ ক্লাবটির আশা অবশ্য পূরণ হয়নি।

neymar jr cavani mbappe psg

উল্টো রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ফিরতি লেগে ২-১ ব্যবধানে হেরেছে তারা। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-২ ব্যবধানে হেরে টানা দ্বিতীয়বারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলো থেকে ছিটকে গেছে পিএসজি।

প্রায় আড়াই সপ্তাহ আগের ক্ষতটা এখনো শুকায়নি। পিএসজির সেই দুঃস্মৃতি কিছুটা হলেও বাড়িয়ে দিল উয়েফা। সমর্থকদের কাণ্ডে পিএসজিকে শাস্তির মুখোমুখি করেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা উয়েফা।

পিএসজি-রিয়াল ম্যাচের অনেকটা সময় ধোঁয়ায় ঘিরে ছিল স্টেডিয়াম। আসলে ধোঁয়া এসেছিল পার্ক ডু প্রিন্সেস স্টেডিয়ামের উত্তর দিকের গ্যালারি থেকে। যেখানে মাত্রাতিরিক্তি অগ্নিকুণ্ডুলি, আতশবাজি এবং অগ্নিশিখা প্রজ্জ্বলন করেছিলেন পিএসজি সমর্থকরা। এর সঙ্গে লেজার লাইটও ব্যবহার করেছিলেন তারা।

শুধু তাই নয়, স্টেডিয়ামের উত্তর পাশের গ্যালারির সিঁড়িতেও বিশৃঙ্খলা তৈরি করেছিলেন পিএসজি ভক্তরা। পিএসজি সমর্থকদের এসব কাণ্ড ম্যাচ চলাকালীন কিছুটা হলেও বিঘ্ন ঘটিয়েছে। এনিয়ে অভিযোগও নাকি দিয়েছিল সম্প্রচার কর্তৃপক্ষ। সবমিলিয়ে পিএসজির জন্য শাস্তিটা যেন অনুমিতই ছিল।

এবং হলোও তাই। সমর্থকদের আগুন-কাণ্ডে পিএসজিকে ৪৩ হাজার ইউরো জরিমানা করেছে উয়েফা। শুধু তাই নয়, ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় পরের ম্যাচে প্যারিসের ক্লাবটিকে খেলতে হবে কম দর্শকের উপস্থিতিতে।

পার্ক ডু প্রিন্সেসের উত্তর গ্যালারি এক ম্যাচের জন্য বন্ধ করে দিচ্ছে উয়েফা। এক বিবৃতিতে পিএসজিকে শাস্তিদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের অভিভাবক সংস্থাটি।

সমর্থকদের বিশৃঙ্খলার দায়ে শাস্তি পেয়েছে ফ্রান্সের বিখ্যাত আরেক ক্লাব অলিম্পিক মার্শেইও। ইউরোপা লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে লাইপজিগ ম্যাচে সমর্থকদের কাণ্ডে ৩০ হাজার ইউরো জরিমানা করা হয়েছে মার্শেইকে।