advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 15 মিনিট আগে

কয়েক বছর ধরেই রিয়াল মাদ্রিদের নজরে ছিলেন ভিচিনিয়াস জুনিয়র। গত বছর তার ক্লাব ফ্ল্যামেঙ্গোর সঙ্গে চুক্তি করে স্প্যানিশ ক্লাবটি। কিন্তু ব্রাজিলিয়ান উঠতি তারকাকে কিনলেও মাঠে নামাতে পারছিল না রিয়াল। ভিনিচিয়াসের বয়সটাই যা বাধা ছিল। এই মৌসুমের শুরুতে বাধাটা দূর হয়ে গেছে। ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে তার।

vinicius junior poses with real madrid t shirt

নতুন মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে অভিষেকের পর থেকেই আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন ভিনিচিয়াস। এমন একজন ফুটবলারকে কিনতে চেয়েছিল রিয়ালের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাও। সেলক্ষ্যে ব্রাজিলিয়ান সেনসেশনকে বাড়তি অর্থের প্রস্তাব দিয়েছিল কাতালান ক্লাবটি। কিন্তু বার্সার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে দিয়েছিলেন ভিনিচিয়াস। তিনি বেছে নেন মাদ্রিদ জায়ান্টদের।

মঙ্গলবার স্প্যানিশ রেডিওকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ভিনিচিয়াস জানান তার সিদ্ধান্তটা সঠিকই ছিল। তিনি বলেছেন, ‘অনেক প্রস্তাবই এসেছিল। রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা প্রস্তাব পাঠানোর পর আমি এবং আমার বাবা সেখানে গিয়েছিলাম। দুটি ক্লাবই আমার ভালো লেগেছিল। তবে মনে হচ্ছে রিয়ালে আসার সিদ্ধান্তটাই ঠিক ছিল।’

রিয়ালের চেয়ে বেশি অর্থ দিতে চেয়েছিল বার্সা। কিন্তু আর্থিক দিকটা টলাতে পারেনি ভিনিচিয়াসের মন। স্বদেশি মার্সেলো ও ক্যাসেমিরোর (রিয়ালের দুই ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার) সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। ভিনিচিয়াস বলেছেন, ‘বার্সেলোনা আমাকে বেশি অর্থ দিতে রাজি ছিল। কিন্তু আমরা সেরা জায়গাটাই চাচ্ছিলাম। ক্যাসেমিরো ও মার্সেলো আমার সঙ্গে কথা বলেছিল এবং যা আমার সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে।’

sheikh mujib 2020