advertisement
আপনি দেখছেন

আন্তর্জাতিক বিরতি থেকে প্রায় ক্লান্তি নিয়ে ফিরলেন বার্সেলোনা ফুটবলাররা। যেটার প্রভাব পড়ল তাদের পারফরম্যান্সে। তাতে লা লিগায় পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল কাতালানরা। শেষ অবধি শঙ্কাটা উড়িয়ে দিয়েছে বার্সা। আজ পিছিয়ে থেকেও লেগানেসের মাঠ থেকে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ঘরে ফিরেছেন মেসি-সুয়ারেজরা।

vidal goal gives barcelona win leganes la liga

এই জয়ের ফলে রিয়াল মাদ্রিদের ওপর চাপটা অব্যাহত রাখল কাতালান ক্লাবটি। ১৩ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে স্প্যানিশ লিগের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে এরনেস্তো ভালভার্দের দল। তাদের পেছনে থাকা দুই মাদ্রিদই এক ম্যাচ কম খেলেছে। ২৫ পয়েন্ট নিয়ে লিগ তালিকার দুইয়ে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের চেয়ে পয়েন্ট পিছিয়ে তিন ও চারে থাকল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও সেভিয়া।

প্রথমার্ধের প্রায় পুরোটা সময় নিজেদের হারিয়ে খুঁজেছে বার্সেলোনা। আক্রমণে ছিল না কোনো ধার। রক্ষণভাগও ছিল প্রায় নড়বড়ে। স্বাগতিক লেগানেস সেই সুযোগেই সদ্ব্যবহার করেছে। ১২ মিনিটে বার্সার জাল কাঁপিয়ে স্বাগতিকদের উচ্ছ্বাসে ভাসান মরোক্কান ফরওয়ার্ড এননেসিরি। গোল হজমের পর দিশেহারা বার্সা ছন্দছাড়া ফুটবল খেলতে থাকে।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা ছন্দে ফিরেছে দ্বিতীয়ার্ধে। গোছানো ফুটবল খেলে ভালভার্দের দল ফেরে সমতায়। বার্সাকে ম্যাচে ফেরান লুইস সুয়ারেজ। বার্সা সমতায় ফিরতে পারতো বিরতির পরপরই। কিন্তু অতিথিদের হতাশ করে লেগানেসের গোলপোস্ট। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে যে জেরার্ড পিকের হেড পোস্টে লেগে ফিরে আসে! সেই হতাশা অবশ্য একটু পরই দূর হয়েছে।

৫৩ মিনিটে উরুগুয়েন স্ট্রাইকারের গোলে লড়াইয়ে প্রাণ পায় কাতালানরা। লিগের চলতি আসরে এটা সুয়ারেজের সপ্তম গোল। মেসির পঞ্চম অ্যাসিস্ট। সংখ্যাটা আরো বাড়তে পারতো, সেটা হয়নি সতীর্থদের ব্যর্থতায়। জয়ের জন্য মুহুর্মুহু আক্রমণ করতে থাকে বার্সা। অবেশেষে ৭৯ মিনিটে অপেক্ষার অবসান ঘটে। স্বস্তির জয়সূচক গোল করেন আর্তুরো ভিদাল।

sheikh mujib 2020