advertisement
আপনি দেখছেন

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। অথচ শেষ ষোলোর টিকিটের জন্য গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হলো অল রেডদের। মার্সিসাইড ক্লাবটিকে নিয়ে কিছুটা আশঙ্কাও দেখা দিয়েছিল। মঙ্গলবার রাতে সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

liverpool celebrating a goal over red bull

রবিন লিগের শেষ রাউন্ডে প্রত্যাশিত জয় দিয়েই নক আউটে পর্বে উঠে গেল লিভারপুল। রেড বুল সালজবুর্গের মাঠে ২-০ গোলে জিতে অল রেডরা হয়েছে ‘ই’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। এই গ্রুপ থেকে শেষ ষোলোতে তাদের সঙ্গী হয়েছে ফেভারিট নাপোলি। কাল রাতে অন্য ম্যাচে গেঙ্ককে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছেন ইতালিয়ান ক্লাবটি।

১৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লিভারপুল। এক পয়েন্ট পিছিয়ে রানার্সআপ নাপোলি। ‍দুটি দলকেই বেশ চাপে রেখেছিল রেডবুল সালজবুর্গ। কিন্তু ছয় ম্যাচে সাত পয়েন্ট নিয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেল অস্ট্রিয়ান ক্লাবটি। আগেই বিদায় নেওয়া গ্রুপের অন্য দল বেলজিয়ান ক্লাব গেঙ্কের পয়েন্ট এক।

সালজবুর্গের মাঠে প্রথমার্ধেই অগ্নিপরীক্ষা দিতে হয়েছে লিভারপুলকে। ঠিক চেনা ছন্দে ছিলেন না ক্লপের শিষ্যরা। তারওপর শঙ্কাও উঁকি দিচ্ছিল। অবস্থা এমন যে, এই ম্যাচে হারলে বিপদ হতে পারতো অল রেডদের। বিরতির পর দুই মিনিটের ব্যবধানে সব দুশ্চিন্তা দূর করে দেয় ইংলিশ জায়ান্টরা।

৫৭ মিনিটে নাবি কেইটার গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। পরের মিনিটে শাপমোচন করেন মোহাম্মদ সালাহ। মিশরীয় ফরওয়ার্ড করেন দুর্দান্ত এক গোল। তার কুড়ি গজি শট আশ্রয় নেয় সালজবুর্গের জালে। তাতেই নিশ্চিত হয়ে যায় টুর্নামেন্টের চলতি আসরে লিভারপুলের চতুর্থ জয়।

অবশ্য লিভারপুল যতটা কষ্টে জিতেছে ততটাই সহজ জয় পেয়েছে নাপোলি। ইতালিয়ান ক্লাবটির বড় জয়ের নায়ক আর্কাদিউজ মিলিক; করেছেন তিন গোল। তিন মিনিটে প্রথম গোল করা পোলিশ স্ট্রাইকার ৩৮ মিনিটে পেনাল্টি করেন হ্যাটট্রিক। নাপোলির অন্য গোলটাও এসেছে পেনাল্টি থেকে। গোল করেন মার্টিন্স।