advertisement
আপনি দেখছেন

প্রায় বছর ত্রিশ হবে। ইংলিশ লিগের শিরোপা জিততে পারেনি লিভারপুল। দীর্ঘ তিন দশকের অপেক্ষা ঘোচাতে অল রেডরা যে এমন অবিশ্বাস্য হয়ে উঠবে সেটা ছিল কল্পনারও বাইরে। অপ্রতিরোধ্য লিভারপুলকে যেন থামানোর কেউ নেই। লিগের সবকটি দলই অন্তত একবার হলেও হেরেছে তাদের কাছে।

roberto firmino liverpool 2019 2020

বাকি ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এই দলটা মৌসুমে প্রথমবারের দেখায় ওল্ড ট্রাফোর্ডে রুখে দিয়েছিল লিভারপুলকে। সেই ড্রয়ের জবাব অ্যানফিল্ডে দিয়েছিল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। বৃহস্পতিবার রাতেও যথারীতি জয়ের নিশ্ছিদ্র পথে হাঁটলেন সালাহ-ফন ডাইকরা। উলভারহ্যাম্পটনের মাঠে কাল রাতে লিভারপুল জিতেছে ২-১ গোলে।

প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুতেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ফেলে লিভারপুল। আট মিনিটে অ্যালেকক্সান্ডার আরনল্ডের কর্নার থেকে মাথা ছুঁয়ে উলভারের জালে বল জড়ান জর্ডান হেন্ডারসন। পরে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করেছেন মোহাম্মদ সালাহ। উল্টো দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে গোল হজম করে বসে লিভারপুল।

অতিথিদের জালে বল পাঠান রাউল গিমিনেজ। মেক্সিকান স্ট্রাইকারের হেডে ভেঙে যায় অল রেডদের প্রতিরোধ। ইংলিশ লিগে টানা সাত ম্যাচ পর গোল হজম করল লিভারপুল। সমতায় ফিরে উজ্জীবিত উলভার অনেকটা সময়ই ক্লপের শিষ্যদের সঙ্গে দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করেছে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি তাতে।

অবশ্য পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল লিভারপুল। এই শঙ্কা অবশ্য অল রেডদের জন্য নতুন কিছু নয়। এই মৌসুমে বেশ কয়েকটি ম্যাচে শেষ দিকে গোল করে জিতেছে তারা। কালও তেমনকিছুর পুনরাবৃত্তি হলো। ৮৪ মিনিটের ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ হয়ে যায় রবার্তো ফিরমিনোর গোলে। লিভারপুল পেল এই মৌসুমে লিগের ২২তম জয়।

কষ্টার্জিত এই জয়ে লিগ তালিকার দুইয়ে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান আরো বাড়িয়ে নিল মার্সিসাইডের ক্লাবটি। ২৩ ম্যাচে লিভারপুলের সংগ্রহ ৬৭ পয়েন্ট। এক ম্যাচ বেশি খেলে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে থাকল সিটিজেনরা। তিনে থাকা লেস্টার সিটির ঘরে আছে ৪৮ পয়েন্ট। চেলসির পয়েন্ট ৪০ এবং ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।