advertisement
আপনি দেখছেন

বর্তমান ফুটবল বিশ্বের বিস্ময় জ্যাডন স্যানচো ও আর্লিং হাল্যান্ড। কাল রাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের মহারণে জ্বলে উঠতে পারেননি প্রথমজন। দ্বিতীয়জন অবশ্য আগুন ঝরিয়েছেন। শেষ ষোলোর প্রথম লেগে পিএসজির বিরুদ্ধে করেছেন জোড়া গোল। হাল্যান্ডের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের সুবাদে ফরাসি ক্লাবটিকে ২-১ গোলে হারাল জার্মান জায়ান্ট বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।

erling haaland borussia dortmund 2019 20

ঘরের মাঠ সিগনাল ইদুনা পার্কে হাল্যান্ড শুধু দলকে জিতিয়েছেন তা নয়, নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। সবচেয়ে কম সময়ে ইউরোপের শীর্ষস্থানীয় প্রতিযোগিতায় দশ গোল করলেন তিনি। একই সঙ্গে টুর্নামেন্টের চলতি আসরের গোল্ডেন বুটের লড়াইয়ে প্রবলভাবে ফিরে এলেন হাল্যান্ড।

ডর্টমুন্ড তারকার গোল এখন বায়ার্ন মিউনিখ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডফস্কির সমান দশটি। জার্মান ফুটবলে আসার আগে সালবার্জের হয়ে গ্রুপপর্বে আটটি গোল করেছিলেন তিনি। সবমিলিয়ে এই মৌসুমে নরওয়েজিয়ান বিস্ময় বালকের গোল সংখ্যা ৩৯টি। অথচ হাল্যান্ড ম্যাচ খেলেছেন মোটে ২৮টি! তন্মধ্যে ডর্টমুন্ডের হয়ে সাত ম্যাচে ১১ গোল হলো তার।

হাল্যান্ডের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে অনেকটাই আড়াল হয়ে গেল পিএসজির ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন নেইমারের মাঠে ফেরাটা। মঙ্গলবার রাতে ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেই গোল করলেন তিনি। নেইমারের মহামূল্যবান অ্যাওয়ে গোলের কারণে কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার আশা ভালোভাবেই টিকে থাকল পিএসজির। ফিরতি লেগে ঘরের মাঠ পার্ক ‍ডু প্রিন্সেসে ১-০ গোলে জিতলেই চলবে তাদের।