advertisement
আপনি দেখছেন

এই মুহূর্তে বিশ্বসেরা গোলরক্ষক কে? উত্তরে প্রায় সবাই লিভারপুলের ব্রাজিলিয়ান তারকা অ্যালিসন বেকারের কথাই বলবেন। কিন্তু ওইসব মানুষের সঙ্গে একমত নন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের প্রধান কোচ ডিয়েগো সিমন। আর্জেন্টাইন কোচের মতে বিশ্বসেরা গোলরক্ষক জান ওবলাক।

jan oblak atletico madrid 2019 20

নিজের শিষ্যকে সিমন বিশ্বসেরা বলতেই পারেন। কিন্তু কথাটা কেবল বলার জন্য বলা নয়। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ কোচের দাবিটা একেবারেই অমূলক নয়। বিশেষ করে বুধবার রাতে যারা ওবলাকের পারফরম্যান্স দেখেছেন তারা অন্তত আর্জেন্টাইন কোচের সঙ্গে একমত হবেন।

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে লিভারপুলের বিপক্ষে অবিশ্বাস্য পারফর্ম করেছেন ওবলাক। ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ড স্টেডিয়ামে সালাহ-মানে-ফিরমিনোদের মুহুর্মুহু আক্রমণের বিপরীতে গড়ে তোলেন চীনের প্রাচীর। অল রেডদের সব প্রচেষ্টা মাটি করে দিয়েছেন এই গোলরক্ষক।

এদিন গোলপোস্টের নিচে ওবলাক অতিমানব না হয়ে উঠলে অন্তত চারটা গোল পেতে পারতো লিভারপুল। অল রেডরা উঠতে পারতো কোয়ার্টার ফাইনালে। ম্যাচটার ব্যবধান গড়ে দিয়েছে ওবলাকের দুর্দান্ত এই নৈপুণ্য। তার কারণে ম্যাচটা অতিরিক্ত ত্রিশ মিনিটে গেছে। কারণ নির্ধারিত সময় শেষে লিভারপুল ১-০ গোলে এগিয়ে থাকলেও দুই লেগ মিলিয়ে লড়াই ছিল সমতায়।

দুই গোল পিছিয়ে থাকা থ্রিলার ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ জিতেছে ৩-২ ব্যবধানে। সামষ্টিকভাবে ৪-২ গোলে এগিয়ে মাদ্রিদ জায়ান্টরা উঠেছে কোয়ার্টার ফাইনালে। স্প্যানিশ ক্লাবটির এই জয়ের নায়ক ওবলাক। ম্যাচ শেষে তাকে ঘিরে উৎসব চলেছে অ্যাটলেটিকো শিবিরে।

২৭ বছর বয়সী স্লোভেনিয়ান গোলরক্ষকের পারফরম্যান্সে ভীষণ খুশি দলটির কোচ সিমন। তার মতে ওবলাক অ্যাটলেটিকোর মেসি। আর্জেন্টাইন কোচ বলেছেন, ‘আমার কোনো সন্দেহ নেই যে, বিশ্বসেরা গোলরক্ষক আমাদের দলে। মেসি আক্রমণাত্মকভাবে যেভাবে ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করেন, তেমনি ওবলাক রক্ষণাত্মকভাবে তাই করেন।’

ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন মার্কোস লরেন্তে। দুর্দান্ত খেলেছেন ফেলিক্স-স্যাভিকসহ অন্যরাও। সবমিলিয়ে মার্সিসাইডে একটা দল হিসেবে খেলে জয় ছিনিয়ে নিয়ে গেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। নক আউট পর্বের শুরুতেই তারা বিদায় করেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের।

sheikh mujib 2020