advertisement
আপনি দেখছেন

ব্রাজিলের সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার ও সাবেক বার্সেলোনা তারকা রোনালদিনহো এবং বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসির ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথা সবারই জানা। এ কথা তারা নিজেরাও বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। বার্সেলোনায় মেসির বেড়ে উঠার পেছনেও রোনালদিনহোর সবচেয়ে বেশি অবদান বলে অনেকে মনে করেন।

1messi ronaldinhoরোনালদিনহো (বামে) ও লিওনেল মেসি

বলা হয়, রোনালদিনহোর ফর্ম যখন তুঙ্গে তখন বার্সেলোনায় যোগ দেন তরুণ মেসি। এরপর থেকেই মেসিকে আগলে রেখেছিলেন ব্রাজিলের বিশ্বকাজয়ী এই খেলোয়াড়। নিজে বার্সেলোনা ছেড়ে যাওয়ার পর দলটির সাফল্যের নেতৃত্বভার দিয়ে যান মেসির ওপর। তাই একে অন্যের বিপদে তারা এগিয়ে আসবেন এটাই স্বাভাবিক।

সম্প্রতি ভুয়া কাগজপত্রের কারণে প্যারাগুয়েতে গ্রেপ্তার হন রোনালদিনহো। তাকে ছাড়াতে ৪ মিলিয়ন ইউরো খরচ করছেন মেসি, এমন সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তবে এ তথ্য সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন মেসিরই এক ঘনিষ্ঠ সূত্র।

স্প্যানিশ গণমাধ্যম মার্কার এক প্রতিবেদনে বলেছে, রোনালদিনহোর এমন ঘটনায় খুবই দুঃখ পেয়েছেন মেসি। তবে তাকে ছাড়াতে অর্থনৈতিক ও আইনি সাহায্য করার কোনো পরিকল্পনা নেই আর্জেন্টাইন তারকার। আর এ ব্যাপারে তার আইনজীবীকে নিয়েও কোনো কাজ করছেন না তিনি।

এর আগে গত ৪ মার্চ পাসপোর্ট জালিয়াতি করে প্যারাগুয়েতে ঢুকে পড়ায় গ্রেপ্তার করা হয় রোনালদিনহোকে। এ সময় তার হোটেল রুমে তল্লাশি চালিয়ে জাল পাসপোর্ট ও অন্যান্য ভুয়া কাগজপত্র উদ্ধার করে প্যারাগুয়ে পুলিশ।

জানা যায়, ব্রাজিলিয়ান এই সুপারস্টারের কাছে যে পাসপোর্ট পাওয়া গেছে তাতে তার নাম, জন্মস্থান এবং জন্মতারিখ- সবই ঠিক আছে। কেবল নাগরিকত্বের জায়গায় ব্রাজিলের বদলে প্যারাগুয়ে বসানো হয়েছে। কেন এমন লুকোচুরির আশ্রয় নিতে হলো এই গ্রেটকে? কারণ ২০১৮ সালের নভেম্বরে রোনালদিনহো তার ব্রাজিলিয়ান পাসপোর্ট খুইছেন। 

ronaldinho arrest policeপুলিশের হাতে আটক রোনালদিনহো

অনুমতি ছাড়া একটি চিনির কল বানানোয় তাকে ২৩ লাখ ডলার জরিমানা করা হয়েছিল এবং পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। জরিমানা নিতে গিয়ে দেখা গেল তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আছে মাত্র ৬ ডলার ৫৯ সেন্ট! জরিমানা দিতে না পারায় রোনালদিনহো পাসপোর্টও আর ফিরে পাননি। ফলে দেশ ছাড়ার উপায়ও বন্ধ হয়ে যায় তার।

নিজের পরিচয় লুকিয়ে প্যারাগুয়েতে গিয়েছিলেন একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে। সেখানে হোটেলে উঠার পর কর্মকর্তারা কাগজপত্র পরীক্ষা করতে গিয়ে জাল পাসপোর্ট পেয়েছেন বলে দেশটির গণমাধ্যমের খবর। খেলোয়াড়ি জীবনে ব্রাজিলের বড় তারকা ছিলেন রোনালদিনহো। ২০০২ সালে দেশের হয়ে জিতেছেন বিশ্বকাপও। খেলেছেন বার্সেলোনা, প্যারিস সেন্ট জার্মেই, মিলানের মতো বড় ক্লাবে।