advertisement
আপনি দেখছেন

বার্সেলোনায় খেলোয়াড় ভূমিকায় নিজেকে প্রমাণ করেছেন জাভি হার্নান্দেজ। স্বপ্ন ছিল কাতালান ক্লাবটির কোচ হওয়ার। স্বপ্নপূরণের সুযোগটা নাগালেও এসেছিল। কিন্তু বার্সাকে ফিরিয়ে দেন জাভি; গেল জানুয়ারিতে জানিয়ে দেন এই মুহূর্তে মেসিদের দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত নন তিনি।

xavi al sadd 2019

বেশ কয়েক সপ্তাহ পর সিদ্ধান্ত পাল্টালেন বিশ্বজয়ী স্প্যানিশ তারকা। জাভি ফিরতে চান ন্যু ক্যাম্পে। কোচ হতে চান বার্সার। সম্প্রতি স্প্যানিশ একটি ক্রীড়া দৈনিককে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘আমার ভাবনা এখন পরিষ্কার। আমি বার্সেলোনায় ফিরতে চাই। ন্যু ক্যাম্পে ফিরতে পারলে সেটা হবে রোমাঞ্চকর।’

এই মৌসুমের শুরু থেকেই নিজেদের হারিয়ে খুঁজেছে বার্সেলোনা। ক্লাবের ব্যর্থতার দায়ে বলির পাঁঠা বানানো হয়েছে প্রধান কোচ এরনেস্তো ভালভার্দেকে। নতুন কোচ হিসেবে কয়েকজনকেই প্রস্তাব দিয়েছিল বার্সা। কিন্তু পছন্দসই কাউকে না পাওয়ায় শেষ পর্যন্ত রিয়াল বেটিসের প্রাক্তন কোচ কিকে সেতিয়েনের হাতে মেসিদের দায়িত্ব তুলে দেন ক্লাবকর্তারা।

সেতিয়েনের আগে জাভিকে প্রধান কোচ হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল স্প্যানিশ লিগ চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু মৌসুমের মাঝপথে কাতারি ক্লাব আল-সাদের দায়িত্ব ছাড়তে চাননি জাভি। তার মতে বার্সার কোচ হওয়ার প্রস্তাবটা একটু তাড়াতাড়িই চলে এসেছে। এ কারণে বার্সার কোচ হওয়ার চ্যালেঞ্জিং ও ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্তটি নেননি তিনি।

সেই জাভিই এখন বার্সার কোচ হওয়ার স্বপ্নটা নতুন করে দেখছেন। বলছেন নিজের পরিকল্পনার কথা, ‘বার্সার খেলোয়াড়রা বেশ কয়েকজনই নিজেদের পজিশনে বিশ্বসেরা। আমার কাছে লিওনেল মেসি বিশ্বসেরা ফুটবলার। নতুন যারা আছে তারাও দুর্দান্ত। আমি বার্সায় যোগ দিলে নেইমারের মতো উইঙ্গার আনতে চাইব।’

পাঁচ বছর আগে বার্সা ছেড়ে আল-সাদে যোগ দেন জাভি। খেলোয়াড়ি জীবনকে বিদায় জানানোর পর কাতারি ক্লাবেরই কোচ হিসেবে নিযুক্ত হন তিনি। তার আগে ১৭ বছরের বার্সা অধ্যায়ে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৮৫৫টি ম্যাচ খেলেছেন জাভি। এ সময়ে কাতালানদের হয়ে চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ, আটটি লা লিগাসহ মোট ২৫টি শিরোপা জিতেছেন কিংবদন্তি এই মিডফিল্ডার।