advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বন্ধ হয়ে গেছে বিশ্বের প্রায়সব দেশের খেলাধুলা। মাঠে খেলা না থাকায় ফুটবলারদের আয় কিছুটা হলেও কমে গেছে। এর মধ্যে আবার বেতন কেটে নেওয়ার ঘোষণা এসেছে বার্সেলোনার তরফ থেকে। এনিয়ে ক্লাবের ভেতরে ফুটবলারদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। চলছে বিতর্ক।

barcelona messi busqat

মেসিদের বেতনের ৭০ শতাংশ কেটে তা করোনাভাইরাস মোকাবেলায় তহবিলে দান করা হবে। স্প্যানিশ মিডিয়ায় খবর বেরিয়েছে এভাবে পারিশ্রমিক কর্তনে রাজি ছিলেন না দলের বেশ কয়েকজন অভিজ্ঞ ফুটবলার। যদিও বার্সেলোনা সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তেমিউ দাবি করলেন মেসিরা রাজি ছিলেন।

আজ স্পোর্টকে বার্তেমিউ দাবি করেছেন বেতন কাটার প্রস্তাবটা নাকি লিওনেল মেসির কাছ থেকেই এসেছে! তিনি বলেছেন, ‘মেসি আমাকে একদিন বলেছিলেন পারিশ্রমিক কমিয়ে দিতে। আর কর্তনকৃত অর্থ করোনাভাইরাস দুর্যোগ মোকালোর তহবিলে দান করতে। এই প্রস্তাবটা অধিনায়কদের কাছ থেকে এসেছে। আমরা কিছু বলিনি।’

বার্সেলোনার অধিনায়ক মেসি। তার সহকারী আছেন আরো তিনজন। তাদের মতামতের প্রেক্ষিতে নেওয়া হয়েছে সিদ্ধান্ত। এনিয়ে কেন বিতর্ক হয়েছে সেটাও বলেছেন বার্তেমিউ, ‘সম্ভবত (খেলোয়াড়রা) ক্লাবের বাইরের লোকরা যা বলেছিল তা শুনে হতাশ হয়েছিলেন। যদিও তারা কিছুই জানে না। অধিনায়কদের সঙ্গে আলোচনা করেছি আমি এবং অস্কার গ্রু।’