advertisement
আপনি দেখছেন

ফুটবল অঙ্গনে সর্বপ্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন জুভেন্টাস ডিফেন্ডার ড্যানিয়েলে রুগানি। প্রচারমাধ্যমগুলো এমনটাই দাবি করেছে। রুগানি আক্রান্ত হওয়ার খবর বেরুনোর সঙ্গে সঙ্গেই স্থগিত হয়ে গেছে ইতালিয়ান ফুটবলের সবধরনের কার্যক্রম। হোম কোয়ারেন্টিনে চলে গেছেন ক্লাবের সব ফুটবলার।

cristiano ronaldo georgina rodriguez

ইতালির তুরিন শহর থেকে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ফিরে এসেছেন পর্তুগালে; নিজ গ্রাম মাদেইরাতে। এখানেই ঘরে বসে অলস সময় পার করছেন ‍জুভেন্টাস উইঙ্গার। তার সঙ্গে আছেন বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজ ও সন্তানরা। পরিবারের সঙ্গে সময়টা খারাপ কাটছে না পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার রোনালদোর।

গৃহবন্দী এই জীবনটা ভালোই উপভোগ করছেন ‘সিআর সেভেন’। কিন্তু ঘরে বসে থাকলেও ফ্যাশন সচেতন রোনালদো। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি যেসব ছবি পোস্ট করেছেন তা অন্তত সেটারই সাক্ষ্য দিচ্ছে। এই ফ্যাশন সচেতনতায় তাকে সহায়তা করছেন বান্ধবী ও সঙ্গী জর্জিনা।

বাহারি রকমের হেয়ারস্টাইলের জন্য রোনালদো আলাদাভাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তার বিশেষজ্ঞ হেয়ার স্পেশালিস্টও আছে ইতালিতে। কিন্তু ঘরে বসে তাদের তো পাওয়ার উপায় নেই। তাই বলে বসে নেই তিনি। আপাতত রোনালদো কাজ চালিয়ে নিচ্ছেন বান্ধবী জর্জিনাকে দিয়ে!

ঘরে বসে পাঁচবারের বর্ষসেরা ‍ফুটবলারের চুল কেটে দিচ্ছেন জর্জিনা। চুল কাটার এই দৃশ্য শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন রোনালদো। পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে রোনালদোর চুল কাটছেন জর্জিনা। রোনালদো-ও বেশ উপভোগ করছেন তা।

পোস্ট করা ভিডিওতেও করোনাভাইরাস রোধে সতর্কতামূলক বার্তা দিয়েছেন রোনালদো। ইন্সটাগ্রামে ওই পোস্টে ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘ঘরে থাকুন এবং স্টাইলিশ থাকুন।’ রোনালদোর এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

রোনালদো অবশ্য হেয়ারস্টাইলের কাজটা বান্ধবীকে দিয়ে চালাচ্ছেন। কিন্তু অন্যরা? সম্ভবত ঘরে বসে তার মতো ওই সুবিধাটা পাচ্ছেন না অ্যান্তনি মার্শিয়াল, হেক্টর বেলারিন এবং পল পগবা। তিনজনই মাথার সব চুলই ছেঁটে ফেলেছেন!