advertisement
আপনি দেখছেন

স্পেনের শীর্ষস্থানীয় কয়েকটি ক্লাবের ফুটবলারদের পারিশ্রমিক কেটে তা করোনাভাইরাস মোকাবেলার তহবিলে দান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এতে নাকি আপত্তি জানিয়েছেন অনেক ফুটবলারই। এনিয়ে কদিন ধরেই চলছে তুমুল বিতর্ক। বিতর্কের মুখে অবশেষে মুখ খুললেন লা লিগা প্রধান হ্যাভিয়ের টিবাস।

la ligas logo 2020

মঙ্গলবার এক ভিডিও কনভারেন্সে তিনি বলেছেন, ‘আমরা এখন ব্যতিক্রমী, অবিশ্বাস্য এবং প্রবল সংকটের মধ্যে আছি। সবাই অর্থ হারাচ্ছেন। খেলোয়াড়দের বেতন কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাদের আর্থিক ক্ষতি হবে- এটা খুব স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। তবে এনিয়ে আমরা কোনো ইউনিয়নকে পাইনি যাদের সঙ্গে এটা নিয়ে আলোচনা করব।’

‘এই মুহূর্তে প্রথম এবং দ্বিতীয় বিভাগের আটটি ক্লাব ইআরটিই (অস্থায়ী কর্মসংস্থান নিয়ন্ত্রণ ফাইলের) জন্য অনুরোধ করেছে। আগামী কয়েক দিনে আমাদের সব দল ইআরটিই বা স্বতন্ত্র চুক্তির মাধ্যমে বেতন কমানোর প্রক্রিয়া শুরু করবে। আমরা স্প্যানিশ ফুটবল রাষ্ট্রীয় সহায়তা চাই না। তবে আমাদের আর্থিকভাবে স্বাধীন হওয়াটা জরুরি।’ যোগ করেন টিবাস।

করোনাভাইরাস আতঙ্কে আপাতত লিগ স্থগিত আছে। লা লিগা প্রধান জানালেন আগামী মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে পুণরায় বল গড়াতে পারে মাঠে। জুনের মধ্যে লিগ শেষ করার আশা প্রকাশ করেছেন টিবাস, ‘আমরা চেষ্টা করব ৩০ জুনের মধ্যে মৌসুম শেষ করার এবং মে মাসের শেষ সপ্তাহে আমরা লিগ পুণরায় শুরু করতে পারি।’

লিগ মৌসুম পেছানোয় স্বাভাবিকভাবেই পেছাচ্ছে গ্রীষ্মকালীন দল বদলের মৌসুম। এ প্রসঙ্গে লা লিগা সভাপতি টিবাস বলেছেন, ‘এটা পরিষ্কার যে দলবদল পেছাচ্ছে। জুলাই ১ থেকে সেপ্টেম্বর ১ পর্যন্ত যে সূচি আছে তা উপযুক্ত সময় নয়। এটা পরিবর্তন হওয়া উচিত। এই মুহূর্তে এরচেয়ে বেশিকিছু বলতে পারছি না।’