advertisement
আপনি দেখছেন

ম্যানচেস্টার সিটি পারেনি। ব্যর্থ হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, চেলসি, আর্সেনাল, টটেনহাম, লেস্টার সিটি, এভারটনের মতো বড় দলগুলো। জায়ান্টরা যা পারেনি সেটাই করে দেখিয়েছে পুঁচকে বার্নলি। আজ অ্যানফিল্ড স্টেডিয়ামে লিভারপুলকে রুখে দিয়েছে বার্নলি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের এই মৌসুমে ঘরের মাঠে প্রথমবার পয়েন্ট হারাল লিভারপুল।

rodriguez celebrations 2019 20

তাতে লিগে ঘরের মাঠে শতভাগ জয়ের রেকর্ড থেকে ছিটকে গেল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। এগিয়ে থেকেও বার্নলির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করল অল রেডরা। তবে পঁচা শামুকে পা কাটিয়ে একটা রেকর্ড হাতছাড়া করলেও তাদের হাতছানি দিচ্ছে আরো দুটি রেকর্ড। কার্যত ৩৫ ম্যাচে ৯৩ পয়েন্ট চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলের। তাদের এক ম্যাচ কম খেলে ২৪ পয়েন্ট পিছিয়ে দুইয়ে আছে ম্যানচেস্টার সিটি।

অথচ ম্যাচজুড়ে বার্নলির রক্ষণে মুহুর্মুহু আক্রমণ চালিয়েছে লিভারপুল। তাদের হতাশ করেছেন বার্নলি গোলরক্ষক নিক পোপে। ৭১ শতাংশ বল দখলে রেখে ২৩টি আক্রমণ করেছে অল রেডরা। তন্মধ্যে গোলমুখে নয়টি শট নিয়েছে স্বাগতিকরা। বিপরীতে সফলতা এসেছে মাত্র একবার। সেটাও ৩৪ মিনিটে রবার্টসনের গোলে। দ্বিতীয়ার্ধে গোলটার আবার শোধ দিয়ে ফেলেন বার্নলি ফরওয়ার্ড রদ্রিগেজ। এই ড্রয়ে লিগ টেবিলের নয় নম্বরে উঠে ইউরোপা লিগের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল বার্নলি।

jurgen klopp liverpool 2019 20

লিগের এই মৌসুমে নিজেদের মাঠে টানা ১৭ ম্যাচ জিতেছিল লিভারপুল। এই ড্রয়ে সর্বোচ্চ জয়ের রেকর্ড গড়ার সুযোগ হাতছাড়া করল তারা। তবে যৌথভাবে ঘরের মাঠে জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসানোর সুযোগ আছে তাদের। তবে কাজটা কঠিন। অ্যানফিল্ডে অল রেডদের শেষ ম্যাচ যে তিনে থাকা চেলসির বিরুদ্ধে! লিভারপুল অবশ্য ম্যানসিটির সর্বোচ্চ পয়েন্ট (১০০) ও ব্যবধান (১৯) নিয়ে চ্যাম্পিয়নশিপের রেকর্ড ভাঙতে পারে।

sheikh mujib 2020